এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine

লক্ষ্মীর ভান্ডারের বর্ধিত টাকার অর্ডার জারি করে দিল রাজ্য

Courtesy - Facebook

নিজস্ব প্রতিনিধি: তিনি কথা দিলে সেই কথা রাখেন অক্ষরে অক্ষরে। এমন কোনও প্রতিশ্রুতি তিনি দেন না যা তিনি বা তাঁর দল কিংবা তাঁর নেতৃত্বাধীন সরকার রাখতে পারবে না। সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের(Mamata Banerjee) নেতৃত্বাধীন সরকারের অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ২০২৪-২৫ অর্থবর্ষের বাজেট পেশ করার কালেই জানিয়েছিলেন লক্ষ্মীর ভান্ডারের(Lakhir Bhandar) বরাদ্দ বাড়ানো হচ্ছে সব উপভোক্তাদের জন্য। এতদিন লক্ষ্মীর ভান্ডারের ২ কোটিরও বেশি উপভোক্তাদের মধ্যে তপশিলি জাতি ও উপজাতির মহিলারা প্রতি মাসে পেতেন ১০০০ টাকা করে। সাধারন বাড়ির মহিলারা পেতেন মাসে ৫০০ টাকা করে। কিন্তু এবারের রাজ্য বাজেটেই(State Budget 2024-25) জানিয়ে দেওয়া হয় এই বরাদ্দ বাড়ানো হচ্ছে। এপ্রিল মাস থেকে তপশিলি জাতি ও উপজাতির মহিলারা(SC and ST Women) প্রতি মাসে লক্ষ্মীর ভান্ডারের মাধ্যমে পাবেন ১২০০ টাকা করে আর সাধারন বাড়ির মহিলারা(General Cast Women) পাবেন মাসে ১০০০ টাকা করে। এই মর্মে মার্চ মাসের প্রথম দিনেই জারি হয়ে গেল নির্দেশিকা(Notice)। সেখানেই জানানো হয়েছে, লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের মাধ্যমে যারা এতদিন প্রতি মাসে ১০০০ টাকা করে পেতেন তাঁরা এপ্রিল মাস থেকে প্রতি মাসে পাবেন ১২০০ টাকা করে এবং যারা প্রতি মাসে ৫০০ টাকা করে পাবেন তাঁরা পাবেন ১০০০ টাকা করে।

গতকালই মমতা ঝাড়গ্রামের সভা থেকে লক্ষ্মীর ভান্ডার নিয়ে বড় বার্তা দিয়েছেন। জানিয়েছেন, ‘লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা আগামী এপ্রিল মাস থেকে দ্বিগুণ হয়ে যাচ্ছে। যারা ৫০০ টাকা পেতেন, তাঁরা ১০০০ টাকা করে পাবেন। যারা ১০০০ টাকা পেতেন, তাঁরা ১২০০ টাকা পাবেন। মা-বোনেদের হাতখরচের জন্য কারও মুখাপেক্ষী হয়ে থাকতে হবে না। আর মনে রাখবেন এই প্রকল্পের সুবিধা কোনও দিন বন্ধ হবে না। এই টাকা আপনারা জনম জনম পাবেন। এই প্রকল্পে প্রতি মাসে হাজার টাকা করে আপনারা ৬০ বছর বয়স পর্যন্ত পাবেন। কিন্তু তার পরেও সেটা বন্ধ হয়ে যাবে না। ৬০ বছর বয়স হলে এই টাকা বদলে যাবে ওল্ড এজ পেনশনে অর্থাৎ লক্ষ্মীর ভান্ডার ২-এ। সেই প্রকল্পে আপনারা যত দিন বেঁচে থাকবেন, তত দিন টাকা পাবেন। কেউ বাধা দিতে পারবে না। জনম জনম ওই টাকা পাবেন।’ সব থেকে বড় কথা এই প্রকল্পের মাধ্যমে একটি বাড়িতে ২৫ বছর বয়সী যে কোন মহিলা থেকে ৬০ বছর না হওয়া পর্যন্ত মহিলারা এই প্রকল্পের সুযোগ পাবেন। ১টা বাড়িতে ৫জন মহিলা থাকলে ৫জনই সেই সুযোগ পাবেন। শুধু তাই নয়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চালু করা এই লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প এখন দেশের একাধিক বিজেপি ও কংগ্রেস তথা ভিন্ন রাজনৈতিক দলের দ্বারা পরিচালির সরকারগুলির কাছেও মহিলাদের আর্থিক ক্ষমতায়ণের মডেল প্রকল্প হিসাবে গৃহীত হচ্ছে।  

Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

‘বিজেপির ১০ জন নেতা যোগাযোগ রাখছেন’, বোমা ফাটালেন অভিষেক

কলকাতা সহ পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে আগামী ৫ দিন তাপপ্রবাহ চলবে, এপ্রিল মাসের শেষে তাপমাত্রা আরোও বাড়বে

নকশালবাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রিত নাবালিকা গণধর্ষণের শিকার, ধৃত ৫

ঝাড়গ্রামে প্রচণ্ড গরমে কাদায় গড়াগড়ি দুই হাতির

আমাকে মারার পরিকল্পনা করা হয়েছিল, সভা থেকে বিস্ফোরক অভিষেক

২০০ গণ্ডি পার করবে না বিজেপি, রাজ্য ধরে ধরে হিসাব দিলেন মমতা

Advertisement
এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর