Comm Ad 2020-LDC Haringhata Meet

বিদ্যুতের স্বেচ্ছাচারিতায় ধাক্কা দিয়ে চিঠি পাঠালো ইউজিসি

Share Link:

বিদ্যুতের স্বেচ্ছাচারিতায় ধাক্কা দিয়ে চিঠি পাঠালো ইউজিসি

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর অধ্যায় কী এবার শেষের পথে? এই প্রশ্নটাই কার্যত তুলে দিল ইউজিসির পাঠানো একটি চিঠি। সেই চিঠিতে কোথাও বলা নেই যে তাঁকে বদলি করা হচ্ছে বা তাঁকে পদচ্যুত করা হচ্ছে। কিন্তু দীর্ঘ নীরবতার পর অবশেষে বাংলার একমাত্র কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্থ ইউনিভার্সিটি গ্রান্ট কমিশন বা ইউজিসি যে ভাবে চিঠি পাঠিয়ে জবাব চেয়েছে তা কার্যত বকলমে উপাচার্যের জবাবদিহি চেয়ে পাঠানো হয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে। আর তার জেরেই এবার বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্দরে খুশির রেশ ছড়িয়ে পড়েছে। অনেকেই মনে করছেন, বিশ্বভারতীতে বিদ্যুৎ চক্রবর্তী যে যথেচ্ছার চালাচ্ছেন তা এবার বন্ধ করে দিতে পারে কেন্দ্রীয় সরকার। এখুনই না হলেও আগামী দিনে তাঁর পদ কেড়ে নিলেও নিতে পারে মোদি সরকার। কেননা বাংলার বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির হারের পিছনে বিদ্যুতের ভূমিকাও উঠে এসেছে কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন দলের অভ্যন্তরীণ বিশ্লেষণে।
 
কেন্দ্রে মোদি সরকার আসা ইস্তক বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়কে ঘিরে বাংলার জনমানসে নানা ঘটনায় ক্ষোভ তৈরি হচ্ছিল। বিশেষ করে বিদ্যুৎ চক্রবর্তী উপাচার্য হিসাবে আসার পরে যেভাবে বিশ্বকবির স্মৃতিধন্য এই কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে একের পর এক রীতিনীতি ভঙ্গ করা হয়েছে, ঐতিহ্যে আঘাত হানা হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরকে যেভাবে পাঁচিলবন্দি করা হয়েছে এবং সর্বোপরি যেভাবে গেরুয়া সন্ত্রাস চালানো হচ্ছে তা নিয়ে বাঙালি ও রবীন্দ্রপ্রেমীদের মধ্যে ক্ষোভের শেষ নেই। এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ বিক্ষোভও যে হচ্ছে না তা নয়, তবে বিদ্যুৎ এতদিন ধরে এই সব কিছুই বহাল তবিয়তে করে যাচ্ছিলেন কেন্দ্র সরকারের মৌন সমর্থনে। কিন্তু এবার ধাক্কা এল সেই কেন্দ্রের তরফেই। ইউনিভার্সিটি গ্রান্ট কমিশন বা ইউজিসি এবার বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়কে চিঠি দিয়ে ৩ পড়ুয়ার বিরুদ্ধে সাসপেনশান কাণ্ডের তদন্তের রিপোর্ট চেয়ে পাঠালো। সেই সঙ্গে কেন বার বার তাঁদের সাসপেনশানের মেয়াদ বাড়ানো হচ্ছে তা নিয়েও জবাব চেয়ে পাঠানো হচ্ছে। আপাতদৃষ্টিতে এই ঘটনার সঙ্গে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর সরাসরি কোনও যোগাযোগ নেই। তবে এটা ঘটনা যে ওই তিনি পড়ুয়া বিদ্যুতের বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভের জেরেই সাসপেনশানের শিকার হয়েছেন।
 
যে ৩ পড়ুয়ার সাসপেনশানকে কেন্দ্র করে ইউজিসি চিঠি পাঠিয়েছে সেই তিনজন হলেন ফাল্গুনী পান, সোমনাথ সৌ ও রূপা চক্রবর্তী। এদের মধ্যে প্রথমজন অর্থনীতি, দ্বিতীয়জন রাজনীতি ও তৃতীয়জন হিন্দুস্থানী শাস্ত্রীয় সঙ্গীত বিভাগের পড়ুয়া। তবে ৩জনই এসএফআইয়ের সক্রিয় সদস্য। বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্যের সাসপেনশনের বিরুদ্ধে এই ৩ পড়ুয়া কার্যত বিদ্যুৎ চক্রবর্তীকে তোপ দেগেই প্রতিবাদ বিক্ষোভে সামিল হয়েছিলেন। তার জেরেই এদের সাসপেন্ড করা হয়। কিন্তু তাঁদের বিরুদ্ধে তদন্ত শেষ না করেই বার বার বাড়ানো হচ্ছিল সাসপেনশনের মেয়াদ। এ বার দ্রুত সেই ঘটনার তদন্ত শেষ করে বিস্তারিত রিপোর্ট পাঠানোর নির্দেশ দিল ইউনিভার্সিটি গ্রান্ট কমিশন। চলতি বছরের ১৪ জানুয়ারি এই তিন পড়ুয়াকে সাসপেন্ড করা হয়। সেই সাসপেনশনের মেয়াদ জুলাই পর্যন্ত। অথচ সেই সময়সীমা শেষ হওয়ার আগেই আবার তা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে অক্টোবর মাস পর্যন্ত। ফলে ওই তিন পড়ুয়া আগামী ৩-৪ মাস বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনও ক্লাস করতে পারবে না। এমনকী, বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনও কাজেই উপস্থিত থাকতে পারবে না। ফলে, সময়ে পরীক্ষা দেওয়া তো দূর তাঁদের ডিগ্রি অর্জনও করতে পারবে না। এই খামখেয়ালীমূলক সাসপেনশানের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছে এসএফআই। তাঁরা এই সাসপেনশান প্রত্যাহার করতে ইউজিসি-কে ইমেলও পাঠিয়েছে। সেই সঙ্গে বিশ্বভারতীর অধ্যাপক সংগঠনের তরফ থেকেও একাধিকবার প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। বিশ্বভারতীর এও ৩ পড়ুয়ার পাশে দাঁড়িয়েছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়, জহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো প্রতিষ্ঠানও।
 
অভিযুক্ত তিন পড়ুয়া ফাল্গুনী পান, সোমনাথ সৌ ও রূপা চক্রবর্তীর সাসপেনশন প্রত্যাহারের দাবিতে অবস্থান বিক্ষোভ ছাড়াও সরাসরি বিশ্ববিদ্য়ালয়ের আচার্য তথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, পরিদর্শক রামনাথ কোবিন্দকে ইমেল করা হয়। তারপরেই বিশ্বভারতীর রেজিস্ট্রার-কে ইমেল পাঠিয়েছেন ইউজিসি-র আন্ডার সেক্রেটারি। ইমেলে তিন পড়ুয়াকে সাসপেনশনের কারণ ছাড়াও, শতাধিক কর্মীর বদলি, প্রায় ত্রিশ জন অধ্যাপকের বরখাস্তকরণ, বকেয়া বেতন না মেটানো-সহ একাধিক বিষয়ে উল্লেখ করে পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে ইউজিসি। যা কার্যত বিদ্যুৎ জমানার যথেচ্চারের নমুনার রিপোর্ট তলব হিসাবেই দেখা হচ্ছে। বিদ্যুতের এই সব অপকর্মের বিরুদ্ধেই এতদিন শান্তিনিকেতনের আশ্রমিক, বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন অধ্যাপক-অধ্যাপিকা থেকে শুরু করে পড়ুয়ারা এবং রবীন্দ্রপ্রেমীরা বার বার সরব হচ্ছিলেন। এবার নড়েচড়ে বসলো মোদি সরকার। একুশের ভোটে হারের পরে বিজেপির অভ্যন্তরীণ সমীক্ষাতেও দেখা গিয়েছে বিদ্যুতের কর্মকাণ্ড ও কথাবার্তার জন্য গেরুয়া শিবিরকে দূরে ঠেলেছে মধ্যবিত্ত ও উচ্চবিত্ত বাঙালি। এবার বিদ্যুৎ বিদায়ের ঘন্টা কার্যত বেজে গেল বিশ্বভারতীতে।

Brand Ad - Poll 2021-01

More News:

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

এই মুহূর্তে Live

2020 New Ad HDFC 05

Stay Connected

Get Newsletter

Featured News

Advertisement

Comm Ad 006 TBS

কেওড়াতলা মহাশ্মশানে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণ দিবসে শ্রদ্ধা 
জানালেন ফিরহাদ হাকিম

কেওড়াতলা মহাশ্মশানে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণ দিবসে শ্রদ্ধা জানালেন ফিরহাদ হাকিম

শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের আবক্ষ মূর্তীতে মাল্যদান করে বিশেষ শ্রদ্ধা জানালেন পুরপ্রশাসক ও রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম

শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের আবক্ষ মূর্তীতে মাল্যদান করে বিশেষ শ্রদ্ধা জানালেন পুরপ্রশাসক ও রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

দায়িত্ব নেওয়ার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে নতুন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিব

কোভিড হাসপাতালে পরিণত হল ইসলামিয়া হাসপাতাল, উদ্বোধন করলেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম

কোভিড হাসপাতালে পরিণত হল ইসলামিয়া হাসপাতাল, উদ্বোধন করলেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম

জামিনে মুক্ত হয়েই শুক্রবার রাত থেকেই কাজে নামেন ববি হাকিম, আজ এক হাসপাতালের উদ্বোধনে হাজির রাজ্যের মন্ত্রী ও পুরপ্রশাসক

জামিনে মুক্ত হয়েই শুক্রবার রাত থেকেই কাজে নামেন ববি হাকিম, আজ এক হাসপাতালের উদ্বোধনে হাজির রাজ্যের মন্ত্রী ও পুরপ্রশাসক

করোনার সময় এই অতিরিক্ত করোনা হাসপাতাল সাধারণ মানুষের উপকারে লাগবে বলে জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম

করোনার সময় এই অতিরিক্ত করোনা হাসপাতাল সাধারণ মানুষের উপকারে লাগবে বলে জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম

Voting Poll (Ratio)

Comm Ad 2020-himalaya RC
Comm Ad 2020-Valentine RC