এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




এলাকা উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গেই বাড়বে জমি-বাড়ির দাম, পদক্ষেপ রাজ্যের

Courtesy - Facebook and Google




নিজস্ব প্রতিনিধি: তৃণমূলের(TMC) জমানায় রাজ্যে(Bengal) নতুন পুরসভা তৈরি হয়েছে গুটিকয় মাত্র। তা নিয়ে ক্ষোভের অন্ত নেই। নানা সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে গোটা দেশের মধ্যে বাংলাতেই এমন এলাকার সংখ্যা সব থেকে বেশি যা খাতায় কলমে গ্রাম পঞ্চায়েত হলেও আদতে তা শহরের রূপ নিয়েছে। কিন্তু রাজ্য সরকার সেই এলাকাকে পুরসভা হিসাবে ঘোষণা করেনি। লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গে তৃণমূলের খারাপ ফলের পিছনে মস্ত বড় কারণ হিসাবে উঠে এসেছে এই শহুরে এলাকাকে পুরসভা হিসাবে গড়ে তোলার আমজনতার দাবিকে মান্যতা না দেওয়ার ঘটনা। সেই বিষয়টি মাথায় রেখেই এবার নয়া পদক্ষেপ করছে রাজ্যের ক্ষমতাসীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের(Mamata Banerjee) সরকার। নয়া সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এলাকাটি পুরসভা হোক কী গ্রাম, সেখানকার উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে বাড়বে সেখানকার জমি বাড়ির দাম। লাভবান হবেন সেখানকার বাসিন্দারা।

কংগ্রেস ও বামা জমানায় যেভাবে বা যে হারে নতুন পুরসভা গড়ে তোলা হয়েছে তার ধারে কাছেও যাওয়ার রাস্তা নেয়নি তৃণমূলের সরকার। এর নেপথ্যে তুলে ধরা হচ্ছে রাজ্যের আর্থিক দুরাবস্থার বিষয়টি। কেননা পুরসভা হল স্থানীয় সায়ত্ত্বশাসন ব্যবস্থা। তা না সরাসরি কেন্দ্রের অধীনে থাকে না রাজ্যের অধীনে থাকে। কিন্তু সেই পুরসভার উন্নয়নের জন্য রাজ্য সরকারকে প্রতি বছর মোটা অঙ্কের টাকা বরাদ্দ করতে হয়। আবার সেই সব পুরসভার উন্নয়নের জন্য কেন্দ্র সরকার সেভাবে কোনও প্রকল্পে টাকা পাঠায় না। ফলে অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায়, সেই সব পুরসভায় আর্থিক ঘাটতি দেখা দেওয়ায় পুরপরিষেবা কার্যত থমকে গিয়েছে। এই ঘটনা চান না মুখ্যমন্ত্রী। তাই নতুন নতুন পুরসভা না গড়ে যে সব পুরসভা আছে সেগুলি যাতে ভালো ভাবে চালানো যায় সেইদিকে নজর দিয়েছে তাঁর দল ও তাঁর সরকার। সেই সঙ্গে জোর দেওয়া হয়েছে এলাকার উন্নয়নের দিকেও। কেন্দ্রের প্রকল্প বা রাজ্যের প্রকল্পের মাধ্যমে খাতায় কলমে গ্রাম পঞ্চায়েত হলেও চেহারায় শহুরে হয়ে ওঠা এলাকার উন্নয়নের কর্মযজ্ঞ চালিয়ে যাচ্ছে রাজ্য সরকার। এবার সেই উন্নয়নের সঙ্গে যুক্ত করা হচ্ছে আমজনতার জমি-বাড়ির দরকেও।

রাজ্যের পরিকল্পনা, বাংলাজুড়ে চালু করা হবে Dynamic Valuation। জমি-বাড়ি কিনতে ইচ্ছুক সকলেই প্রথমে জানতে চান নির্দিষ্ট এলাকার ‘সরকারি’ দাম বা Valuation কত। এতদিন নির্দিষ্ট মৌজা, রাস্তার নাম, প্লট নম্বর, জমির চরিত্র, জমির মাপ, সামনের রাস্তা কতটা চওড়া ইত্যাদি তথ্য দিলে তবেই সেটা জানা যেত। বাড়ি বা ফ্ল্যাটের ক্ষেত্রে এসবের সঙ্গে জমা পড়ত সেখানকার ক্ষেত্রফল। মূলত একটি রাস্তা এবং তার সঙ্গে আনুষাঙ্গিক আরও কিছু বিচার্য বিষয়ের ওপর ভিত্তি করে নির্ধারিত হতো একটি জমির প্লটের বা বাড়ির ‘সরকারি’ দাম। প্রস্তাবিত Zonal Dynamic Valuation ব্যবস্থা চালু হলে বদল আসবে এই গোটা প্রক্রিয়ায়। নতুন ব্যবস্থায় নির্দিষ্ট বর্গ কিলোমিটার ধরে আলাদা আলাদা জোন সৃষ্টি করা হবে। সেই জোনের জন্য একটি Base Value বা সর্বনিম্ন সরকারি দর স্থির করা হবে। তা অবশ্যই নির্ভর করবে এলাকার অবস্থানের ওপর। একই সঙ্গে থাকছে মেট্রো রুট, হাসপাতাল, পার্ক, বাজার, বাসস্ট্যান্ড সহ ১৩-১৪টি বিচার্য ক্ষেত্র। তার ভিত্তিতে নির্ধারিত হবে দাম।

একই সঙ্গে জানা গিয়েছে, রাজ্যের পরিকল্পনা অনুযায়ী এবার থেকে এলাকা উন্নয়নের খুঁটিনাটি Real Time যোগ হবে Zonal Dynamic Valuation’র সঙ্গে। স্বাভাবিকভাবেই তার জেরে বদলাতে থাকবে একটি নির্দিষ্ট প্লটের জমি বাড়ির Valuation। উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে তার পরিবর্তনের কারণেই এই পদ্ধতিকে Dynamic Valuation বলা হচ্ছে। এই নয়া ব্যবস্থার মাধ্যমে যে কেউ যাতে বাড়িতে বসেই কোনও এলাকার জমি বা বাড়ির দাম জানতে পারবেন। এর জন্য রাজ্য সরকার চালু করছে একটি বিশেষ Mobile Application বা App। সেই অ্যাপে অক্ষরেখা-দ্রাঘিমারেখা ধরে নির্দিষ্ট জমির ওপর ক্লিক করলেই দেখানো হবে জমিটির অসেই সময়ের ‘সরকারি’ দাম। ফলে আর ঠিকানা, রাস্তার নাম ইত্যাদির প্রয়োজন পড়বে না। যদিও প্রশ্ন থাকছে, আমজনতা অক্ষরেখা-দ্রাঘিমারেখা ধরে নির্দিষ্ট জমির খোঁজ আদৌ নিতে পারবেন কিনা তা নিয়ে। তবে অস্বীকার করার উপায় নেই যে, এই পদ্ধতি লাগু হলে সব থেকে বেশি লাভবান হবেন আমজনতাই।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

১৩৯৬ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হওয়া দ্বিতীয় ঈশ্বরগুপ্ত সেতুই হবে রাজ্যের দীর্ঘতম

মুখ্যমন্ত্রীর ট্যুইট বার্তায় স্বস্তিতে বাংলাদেশ ফেরত পড়ুয়ারা

জেলায় এসেছিল ৩৪৭ কোটি, পড়ে আছে ২৪৭.০৮ কোটিরও বেশি

মালদার মহদীপুর আন্তর্জাতিক স্থলবন্দরের সীমান্ত দিয়ে আমদানি – রপ্তানি বন্ধ

শিব পূজোয় মাতবেন বীরভূমের বক্রেশ্বর ধামের বাসিন্দারা

গোপনে নাবালিকা মেয়ের বিয়ে,বাড়ির সামনে ধর্না অবস্থান কন্যাশ্রী ক্লাবের

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর