এই মুহূর্তে

টানা বৃষ্টিতে মালদার ইংরেজবাজার এলাকা জলবন্দি

নিজস্ব প্রতিনিধি,ইংরেজবাজার: টানা বৃষ্টিতে নাকাল অবস্থা শহরবাসীর। জলমগ্ন ইংরেজবাজার পৌরসভার ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের সুভাষপল্লী(Subhaspally) এলাকা। শনিবার থেকে টানা বর্ষণে সুভাষপল্লী সহ বিস্তীর্ণ এলাকায় জল জমে যাওয়ার কারণে সমস্যায় পড়েন স্থানীয় বাসিন্দারা। পরিস্থিতি মোকাবিলায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন স্থানীয় কাউন্সিলর সুজিত সাহা। তিনি বলেন, এই সমস্যা প্রায় ৩২ বছরের। তিনি এও বলেন, ৯৫ সালের পর এমন বৃষ্টি পড়েছে। এর আগে বামপন্থী এবং বিজেপি কাউন্সিলর নিকাশির কোন উদ্যোগ নেয়নি। তিনি কাউন্সিলর হওয়ার পর নিকাশি সমস্যা মেটানোর জন্য রেলের সঙ্গে কথা বলে হাইড্রেন তৈরীর উদ্যোগ নিয়েছেন। অনেকটা কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে, পুরো কাজ হয়ে গেলে জল জমবে না এলাকায়। জল নিকাশির জন্য দুটি পাম্প চালিয়ে নিকাশির চেষ্টা করা হয়। এদিকে দিনভর ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি ।কলকাতা-সহ রাজ্যে, হতে পারে আরোও অতিভারী বর্ষণ। কবে থেকে আবহাওয়ার উন্নতি হবে?

বঙ্গোপসাগরের(Bay Of Bengal) উপর একটি মৌসুমি অক্ষরেখা বিস্তৃত রয়েছে। যেটি দিঘার উপর দিয়ে গিয়েছে। বৃষ্টির জেরে পারদ পতন হয়েছে কলকাতায়। শুক্রবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৯.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।বিরাম নেই, বৃষ্টি চলছেই। শুক্রবারের মতো শনিবারেও দফায় দফায় ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি হচ্ছে ।কলকাতা-সহ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস, শনিবার দিনভর বৃষ্টি চলবে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায়। উত্তরবঙ্গের(North Bengal) কয়েকটি জেলায় ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে।শনিবার সকাল থেকেই কলকাতার আকাশে কালো মেঘের আনাগোনা শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই দফায় দফায় কয়েক পশলা বৃষ্টিতে ভিজেছে মহানগর। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, শনি এবং রবিবার কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে বিক্ষিপ্ত ভাবে বৃষ্টি চলবে।

দক্ষিণবঙ্গের (South Bengal)পাশাপাশি, বৃষ্টির সম্ভাবনা জারি করা হয়েছে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতেও। শনিবার জলপাইগুড়ি, দুই দিনাজপুরে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস জারি করা হয়েছে। দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, মালদহে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।কিন্তু কেন এই বৃষ্টি? আবহাওয়া দফতরের আধিকারিক গণেশ দাস জানান, বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ ঘনীভূত হয়েছিল। তবে সেই নিম্নচাপ কেটে গিয়েছে। শক্তি হারিয়ে সেটি ঘূর্ণাবর্তে পরিণত হয়েছিল। সেটি পরে ঝাড়খণ্ডের দিকে সরে গিয়েছে। তবে বঙ্গোপসাগরের উপর একটি মৌসুমি অক্ষরেখা বিস্তৃত রয়েছে। যেটি দিঘার(Digha) উপর দিয়ে গিয়েছে। ঘূর্ণাবর্তটি যখন বঙ্গোপসাগরে ছিল, সেই সময় প্রচুর জলীয় বাষ্প ঢুকেছে রাজ্যে। ফলে সক্রিয় হয়েছে মৌসুমি বায়ু। আর এই কারণেই বৃষ্টি হচ্ছে। কত দিন ধরে চলবে এই বৃষ্টি? হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, সোমবার থেকে পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে।বৃষ্টির জেরে পারদ পতন হয়েছে কলকাতায়। শুক্রবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৯.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি কম। শনিবার কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি ছিল।

Published by:

Subrata Roy

Share Link:

More Releted News:

বাংলার শিক্ষকদের ১,২৭৩ কোটি টাকা আটকে মোদি আসছে আরামবাগে সভা করতে

দুর্নীতি-সই নকলের অভিযোগে অনির্দিষ্টকালের জন্য সাসপেন্ড অধ্যাপক

পরীক্ষা ভাল না হওয়ায় আত্মঘাতী উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী

উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল নিয়ে ঢোকায় ছেলেদের টেক্কা মেয়েদের

মুখ্যমন্ত্রীর জেলা সফরের মুখে জগন্নাথ ধামের কাজের গতি বাড়ল দিঘায়

প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে সন্তানকে খুন, মাকে ফাঁসির সাজা আদালতের

Advertisement

এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর