মমতার বাংলায় আসছেন স্বামী! চাপে বিজেপি

Published by:
https://www.eimuhurte.com/wp-content/uploads/2021/09/em-logo-globe.png

Koushik Dey Sarkar

25th November 2021 12:50 pm

নিজস্ব প্রতিনিধি: দলের সাংসদই দলকে ফেলে দিলেন অগ্নিপরীক্ষার মুখে। দলের সরকারকে তুলোধোনা তো করলেনই, সঙ্গে দলের দাবি কতখানি সত্যি তা খতিয়ে দেখতে বাংলায় আসার কথাও জানিয়ে দিলেন তিনি। আর সেই আসাও একা একা নয়, সঙ্গে থাকবে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের প্রতিনিধিরাও। আর সেই ঘোষণার জেরেই এখন চাপে পড়ে গেল গেরুয়া শিবির। কেননা এই ব্যক্তি যে সাধারন কেউ নন। দলে থেকেও দলেরই চরম চক্ষুশূল এই ব্যক্তি। নাম তাঁর সুব্রহ্মণ্যম স্বামী। বিজেপির এই বর্ষীয়ান সাংসদ বুধবার বিকালেই দিল্লিতে সাক্ষাৎ করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে। আর সেই ঘটনার ২৪ ঘন্টার আগেই বৃহস্পতিবার তিনি টুইট করে জানিয়ে দিলেন, আগামী ডিসেম্বর মাসেই তিনি বিশ্ব হিন্দু পরিষদের প্রতিনিধি দল নিয়ে পা রাখতে চলেছেন মমতার বাংলায়। লক্ষ্য বঙ্গ বিজেপি থেকে কেন্দ্রের বিজেপি নেতা ও মন্ত্রীরা থেকে থেকে যে অভিযোগ করেন মমতার রাজ্যে হিন্দুরা বিপন্ন, সেই দাবি আদৌ কতখানি সত্যি তা খতিয়ে দেখা। একই সঙ্গে এদিন মোদি সরকারের কার্যকারিতা নিয়েও টুইটে বিঁধেছেন স্বামী।

বিজেপির সঙ্গে সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর সম্পর্ক সাম্প্রতিক কালে কার্যত তলানিতে ঠেকেছে। গত মাসেই বিজেপির সর্বভারতীয় কর্মসমিতি থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে রাজ্যসভার এই প্রবীণ সাংসদকে। শুধু তাই নয়, বুধবার বিকেলেই দিল্লিতে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেছেন। সেই সাক্ষাৎ নিয়ে তিনি সাংবাদিকদের জানান, তিনি তৃণমূলে যোগদান করতে আসেননি, কেননা তিনি তৃণমূলেই আছেন। শুধু তাই নয় মমতার প্রশংসাও করেন তিনি। সাফ জানিয়ে দেন, দলবদল না করলেও তিনি মমতার পাশেই আছেন। সেই সাক্ষাতের কয়েক ঘণ্টা পরেই এদিন সকালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং তাঁর সরকারের রিপোর্ট কার্ড তুলে ধরে রীতিমত তোপ দাগেছেন স্বামী। টুইট করে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের ব্যর্থতার নমুনা তুলে ধরেছেন। দিয়েছেন। টুইটে স্বামী লেখেন, ‘মোদী সরকারের রিপোর্ট কার্ড— অর্থনীতি— ব্যর্থ। সীমান্ত নিরাপত্তা— ব্যর্থ। বিদেশিনীতি— আফগানিস্তান সঙ্কট। জাতীয় নিরাপত্তা— পেগাসাস এনএসও। অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা— কাশ্মীর পরিস্থিতি। এই সব কিছুর জন্য দায়ী কে?’

তবে স্বামীর এই টুইটকে কার্যত গ্রাহ্যের মধ্যে না আনলেও, বিজেপি চাপে পড়ে গিয়েছে তাঁর বঙ্গ সফরের প্রসঙ্গ নিয়ে। কেননা সেই ২০১৪ সালের পর থেকেই বাংলায় হিন্দুত্বকে এজেন্ডা বানিয়ে ফেলেছে বিজেপি। সেই এজেন্ডার অঙ্গ হিসাবেই মমতাকে বারে বারে ‘জয় শ্রীরাম’ শ্লোগান দেওয়া বা সংখ্যালঘুদের ওপর সর্বাত্মক আক্রমণের ঘটনা ঘটাচ্ছে তাঁরা। শুধু তাই নয়, বার বার বিজেপি অভিযোগ তুলেছে বাংলায় নাকি হিন্দুরা বিপন্ন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজত্বে নাকি দুর্গাপুজো-সরস্বতী পুজো করতে দেওয়া হয় না, মন্দির নির্মাণ করতে দেওয়া হয়না, আমজনতা বিশেষ করে হিন্দুরা নাকি স্বাধীন ভাবে ধর্মাচারণ করতে পারেন না ইত্যাদি ইত্যাদি। এতদিন বিজেপি একতরফা ভাবে সেই অভিযোগ করে যাচ্ছিল যার ফায়দা তাঁরা একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তুলতে চেয়েছিল। যদিও তা ব্যর্থ হয়েছে। কিন্তু এবার বিজেপির এই দাবি কতখানি সত্যি, আর কতখানি গিমিক তা খতিয়ে দেখতে বিশ্বহিন্দু পরিষদের প্রতিনিধিদের নিয়ে বাংলায় পা রাখতে চলেছেন সুব্রহ্মণ্যম স্বামী। সুব্রহ্মণ্যম একা বাংলায় এলে বিজেপির এই মাথা ব্যাথা হত না। কিন্তু তাঁর সঙ্গে বিশ্বহিন্দু পরিষদের প্রতিনিধিরা থাকায় এখন চাপে পড়ে গিয়েছে বিজেপি। কেননা এক্ষেত্রে বিজেপির মিথ্যা আর ভণ্ডামির মুখোশ খুলে পড়ে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে পূর্ণমাত্রায়। 

More News:

Leave a Comment

Don’t worry ! Your email & Phone No. will not be published. Required fields are marked (*).

নজরকাড়া খবর

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

Subscribe to our Newsletter

86
মিশন দিল্লি, পিকের চাণক্যনীতি কতটা কাজ দিল মমতার?