এই মুহূর্তে

কয়লা পাচারকাণ্ডে প্রথম গ্রেফতারি, সিবিআইয়ের জালে ৪

নিজস্ব প্রতিনিধি: কয়লা পাচারকাণ্ডের মূল অভিযুক্ত অনুপ মাঝি ওরফে লালা এখনও অধরা। তবে তাঁর বাড়ি ও শ্বশুরবাড়ি ও অফিসে বারবার হানা দিয়ে সিবিআইয়ের হাতে এসেছে একাধিক সূত্র। সেই সূত্র ধরেই সোমবার লালা ঘনিষ্ঠ চার ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। কয়লা পাচারে এটাই প্রথম গ্রেফতারি সিবিআইয়ের। ধৃতদের নাম নারায়ণ নন্দ, গুরুপদ মাঝি, নিরোদ মণ্ডল ও জয়দেব মণ্ডল।

সোমবার কলকাতা, আসানসোল ও বাঁকুড়ার একাধিক এলাকায় হানা দেয় কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা। সেখান থেকেই চারজনকে ধরা হয়েছে। ধৃতদের আজই কলকাতায় নিয়ে আসা হচ্ছে। তাঁদের জেরা করে আরও তথ্য় পাওয়া যাবে বলে মনে করছেন সিবিআই আধিকারিকরা। প্রসঙ্গত, পুরলিয়ার বাসিন্দা গুরুপদ মাজি লালার ব্য়বসার অংশীদার। বাঁকুড়ার মেজিয়ায় তাঁর স্টিল ফ্য়াক্টরি রয়েছে। সেখানে আগেই হানা দিয়েছিল সিবিআই। সেখান থেকে তাঁদের হাতে আসে গুরুত্বপূর্ণ নথি।

আসানসোলের বাসিন্দা জয়দেব মণ্ডলও লালার অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ। বাম আমলে কোলিয়ারি এলাকায় কয়লা পাচারের গোটা সাম্রাজ্য ছিল জয়দেব মণ্ডলের হাতে। তবে সরাকার পরিবর্তন হওয়ায় তাঁর রাজ্য়পাট কিছুটা কমে যায়। জয়দেবকে ২০১১ সালে কলকাতার নিউ মার্কেট এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে কলকাতা পুলিশের স্পেশ্যাল টাস্ক ফোর্স। বর্তমানে জামিনে মুক্ত সে। বাকি দু’জন ধৃতও অনুপ মাজির খুব ঘনিষ্ঠ ব্য়বসায়ী।

Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

দুর্নীতি-সই নকলের অভিযোগে অনির্দিষ্টকালের জন্য সাসপেন্ড অধ্যাপক

পরীক্ষা ভাল না হওয়ায় আত্মঘাতী উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী

উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল নিয়ে ঢোকায় ছেলেদের টেক্কা মেয়েদের

মুখ্যমন্ত্রীর জেলা সফরের মুখে জগন্নাথ ধামের কাজের গতি বাড়ল দিঘায়

প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে সন্তানকে খুন, মাকে ফাঁসির সাজা আদালতের

বিয়ের কয়েকদিন আগে গুলি করে আত্মঘাতী কনস্টেবল

Advertisement

এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর