এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




গৃহিণীরও থাকা উচিত Bank Account, ATM Card, পর্যবেক্ষণ সুপ্রিম কোর্টের

Courtesy - Google




নিজস্ব প্রতিনিধি: বাড়ির বউ বাড়ির বউয়ের মতোই থাকবে। স্বামীসেবা, শ্বশুর-শাশুড়ির সেবা করবে, রান্নাবান্না করবে, বাচ্চাদের দেখভাল করবে। মোদ্যা কথা সে সংসার সামলাবে, সংসার নিয়েই থাকবে। টাকা পয়সার দরকার হলে স্বামীকে জানাবে। এই চিরাচরিত ধারনা অনেক আগেই দেশের জনসংখ্যার একাংশ থেকে হারিয়ে গিয়েছে। মেয়েরা এখন নিজের পায়ে দাঁড়াচ্ছে। চাকরিবাকরি করছে। আর্থিক ভাবে সাবলম্বী হচ্ছে। কিন্তু তারপর দেশের একটা বড় অংশের মানুষের মনে গৃহবধূদের ভূমিকা নিয়ে সেই আদ্যিকালের ধারনার অন্ত হয়নি। বরঞ্চ তাঁরা গৃহবধূদের সেই ভাবেই দেখতে চায়, রাখতে চায়। কিন্তু এই ধারনা ও অবস্থানকেই বুধবার জোর ধাক্কা দিল সুপ্রিম কোর্ট(Supreme Court)। দেশের শীর্ষ আদালত দাঁড়ালো দেশের সব গৃহবধূদের(Housewife’s) অধিকারের পাশে। তাঁদের অর্থনৈতিক সুরক্ষার(Economic Security) পাশে। নিজেদের পর্যবেক্ষণে শীর্ষ আদালত জানিয়ে দিল, গৃহিণীরও থাকা উচিত Bank Account, ATM Card।

এদিনই সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি বি ভি নাগারত্ন ও বিচারপতি অগাস্টাইন জর্জ মাসিহর বেঞ্চ কোর্টের। মুসলিম মহিলাদের খোরপোশের দাবিতে মান্যতা দিয়েছেন। বিবাহবিচ্ছেদ হলে হিন্দু মহিলাদের মতোই মুসলিম মহিলারাও স্বামীর কাছে খোরপোশ দাবি করতে পারেন বলে তাঁরা জানিয়েছেন। সেই রায় দেওয়ার সময়েই আদালতের পর্যবেক্ষণ হিসাবে তাঁরা জানিয়েছেন, ‘সময় এসেছে ভারতীয় পুরুষদের গৃহবধূদের ভূমিকা ও আত্মত্যাগকে স্বীকৃতি দেওয়ার। গৃহিণীদের অর্থনৈতিক সুরক্ষা প্রতিষ্ঠায় ব্যাঙ্কে স্বামীর সঙ্গে Joint Account এবং ATM Card ব্যবহারের অধিকার থাকা উচিত। ধর্মের ঊর্ধ্বে খোরপোশ সমস্ত গৃহিনীর অধিকার। আমরা জোর দিতে চাই এই বলে যে, স্বামীর কর্তব্য হওয়া উচিত গৃহবধূকে অর্থনৈতিক অধিকার দেওয়া। এর জন্য স্বামীর সঙ্গে Joint Bank Account থাকা উচিত এবং ATM Card ব্যবহারের ক্ষমতাও থাকা উচিত। অনেক স্বামীরা বুঝতেই পারেন না যে তাঁদের স্ত্রী, যারা গৃহবধূ, তাঁদের ওপরে মানসিক দিক থেকে কতটা নির্ভরশীল। সময় এসেছে ভারতীয় পুরুষদের গৃহবধূদের ভূমিকা ও আত্মত্যাগকে স্বীকৃতি দেওয়ার।’

বস্তুত অনেক বাড়িতেই দেখা যায় গৃহবধূরাই সংসারের হাল ধরে রেখেছেন। তিনিই বাড়ির সব কাজ একাহাতে করার পাশাপাশি স্বামী আর সন্তানের দেখভাল করছেন। শ্বশুর-শাশুড়ির গঞ্জনা উপেক্ষা করেও তাঁদের সেবাযত্ন করছেন। কিন্তু যে গুরুত্ব তাঁর পাওয়ার কথা তাঁর ছিঁটেফোঁটাও তিনি পান না সেই সংসারে। তা সে স্বামীর কাছ থেকেই হোক কী শ্বশুর-শাশুড়ির কাছ থেকে। অথচ সেই গৃহবধূ বাড়িতে না থাকলে এরাই চোখে সর্ষেফুল দেখেন। এবার এই ধারনা ও মানসিকতাকেই জোর ধাক্কা দিল সুপ্রিম কোর্ট। যদিও এই পর্যবেক্ষণের হাত ধরে দেশের ১৪০ কোটি মানুষের দেশে বিশাল কিছু বদল ঘটে যাবে একথা আশা রাখাই বৃথা। তবে এই পর্যবেক্ষণ দেশের ১০ শতাংশ মানুষকে অবশ্যই প্রভাবিত করবে গৃহবধূদের ভূমিকা নিয়ে তাঁদের নতুন করে ভাবতে।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

ভোট ভরাডুবির কারণে ওড়িশার প্রদেশ কংগ্রেস কমিটি ভেঙে দিলেন খাড়গে

বিচারকদের রাজনীতিতে পা ঠেকাতে বিল আসছে রাজ্য সভায়

হরিয়ানার নুহতে সাম্প্রদায়িক অশান্তির আশঙ্কায় বন্ধ মোবাইল ইন্টারনেট পরিষেবা

‘কভি শুনা, রুপিয়া দে কে মিনিস্ট্রি নেহি দিয়া’, নীতীশ আর চন্দ্রবাবুকে নিশানা মমতার

কাঁওয়ার যাত্রা নিয়ে যোগী সরকারের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা

বাজেট অধিবেশন নিয়ে মোদি সরকারকে তোপ খাড়গের

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর