এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




রেণুকাস্বামীর দেহ লোপাটের জন্য ৩০ লাখের সুপারি, স্বীকারোক্তি দর্শনের




নিজস্ব প্রতিনিধি: মাস জুড়েই সংবাদের শিরোনামে রয়েছেন কন্নড় সুপারস্টার দর্শন থুগুদীপা। রেণুকাস্বামী- নামক এক যুবককে হত্যার দায়ের গ্রেফতার হয়েছেন দর্শন।পাশাপাশি গ্রেফতার হয়েছেন দর্শনের দীর্ঘদিনের প্রেমিকা অভিনেত্রী পবিত্রা গৌড়াও। অভিযোগ, পবিত্রা গৌড়াকে অবমাননাকর ম্যাসেজ পাঠানোর জন্যেই কৌশলে রেণুকাস্বামীকে হত্যা করেছেন দর্শন। তাঁর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন মোট ১৪ জন। ইতিমধ্যে সবাইকেই গ্রেফতার করেছে বেঙ্গালুরু পুলিশ। এই ঘটনায় তদন্তে নেমে, পুলিশ একাধিক তথ্য খুঁজে পেয়েছেন। পুলিশের কথায়, রেণুকাস্বামীকে হত্যার দোষ ঢাকতে দর্শন ভুয়ো অপরাধী হিসেবে তিনজনকে ৫ লাখ টাকা করে ১৫ লাখ দিয়েছিলেন। যাতে রেনুকাস্বামী হত্যা মামলায় দর্শনের নাম প্রকাশ্যে না আসে। সম্প্রতি পুলিশি জেরায় দর্শন থুগুদীপা বিষয়টি স্বীকারও করেছেন।তিনি এটাও জানিয়েছেন যে, রেণুকাস্বামী খুনের মামলা থেকে পরিত্রাণ পেতে এবং তার নাম ঘটনা থেকে দূরে রাখতে ভুয়ো অপরাধীদের ৩০ লক্ষ টাকা দিয়েছিলেন।

অপরাধীদের বাড়ি থেকেও টাকা পাওয়া গিয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ। একজন পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, “দর্শন, যিনি মামলায় অভিযুক্ত নম্বর 2 (A2) পুলিশের কাছে তার স্বেচ্ছায় বিবৃতিতে বলেছেন যে তিনি প্রদোষ (A14) কে মৃতদেহটি নিষ্পত্তি করতে ৩০ লক্ষ টাকা দিয়েছিলেন। ব্যক্তিদের এই কাজটি চালানোর জন্য, এবং তার নাম যেন কোথাও বেরিয়ে না আসে তা নিশ্চিত করার জন্য টাকাটা দিয়েছিলেন।” রেণুকাস্বামী হত্যা মামলায় জড়িত থাকার সন্দেহে তদন্তাধীন অভিনেতা দর্শন। এই মূহুর্তে তাঁর পুলিশ হেফাজত ২ দিন বাড়ানো হয়েছে। একটি সাম্প্রতিক আপডেট প্রকাশ করেছে যে, রেণুকাস্বামী কে হত্যার পর দর্শনের জুতাগুলি তার স্ত্রী বিজয়লক্ষ্মীর অ্যাপার্টমেন্টে পাওয়া গেছে, যেখানে তিনি একটি পূজা পরিচালনা করেছিলেন বলে অভিযোগ। পুলিশের দাবি, ৯ জুন রেণুকাস্বামীর মৃতদেহ নিষ্পত্তি করার পর দর্শন তার স্ত্রীর জায়গায় গিয়েছিলেন। বিজয়লক্ষ্মীকে গতবুধবার অন্নপূর্ণেশ্বরী নগরে ডেকে নিয়ে প্রায় পাঁচ ঘণ্টা ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল।

রেনুকাস্বামী হত্যা মামলা কি?

প্রায় ১০ বছর হয়ে গিয়েছে দর্শনের সঙ্গে পবিত্রা গৌড়ার সম্পর্ক। প্রায়শই তাঁদের একসঙ্গে দেখা যায়। ৪৭ বছর বয়সী দর্শন রেনুকাস্বামীর প্রতি ক্ষুব্ধ ছিলেন। যিনি অ্যাপোলো শাখায় ফার্মাসিস্ট হিসাবে কাজ করতেন। কারণ ছিল, রেনুকাস্বামী দর্শনের প্রিয় বন্ধু পবিত্রা গৌড়াকে ইনস্টাগ্রামে অবমাননাকর বার্তা এবং অশ্লীল ছবি পাঠিয়েছিলেন।তাই প্রেমিকাকে নিন্দার বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি দর্শন। তাঁকেই খুন করার দায়ে গ্রেফতার করা হয়েছে দর্শনকে। ৮ জুন রেণুকাস্বামী কাজে গিয়েছিলেন। সেদিন বিকেলেই দর্শনের বন্ধু তথা সন্দেহ ভাজনদের মধ্যে একজন বিনয় একটি জমিতে রেণুকাস্বামীকে ধরে এনে আটকে রাখে। সেখানেই রেণুকাস্বামীকে নানাভাবে মারধর করা হয়। এরপর ৯ জুন সকাল ৮.৩০ টার দিকে তাঁকে পশ্চিম বেঙ্গালুরুর সুমনাহাল্লিতে একটি ঝড়ের ড্রেনের কাছে ফেলে দেওয়া হয়।রেণুকাস্বামীর মৃতদেহ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয় যখন বিপথগামী কুকুর তাকে খাওয়ার চেষ্টা করছিল। তার শরীরে মাথা, মুখ, কানসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে একাধিক আঘাতের চিহ্ন ছিল। ৯ জুন রেণুকাস্বামীকে কাঠের লাঠি ও দড়ি দিয়ে নির্মমভাবে মারধর করা হয়।পুলিশ জড়িতদের জিজ্ঞাসাবাদ করার পরে, দর্শন ও পবিত্র হত্যা মামলায় জড়িত ছিল তা স্পষ্ট হয়। ১০ জু্ন দর্শনকে মাইসুরুর একটি আভিজাত্য হোটেল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল যেখানে পবিত্রাকে বেঙ্গালুরুতে আটক করা হয়েছিল।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

সম্পর্কের বর্ষপূর্তিতেই সাতপাকে বাঁধা পড়লেন সোহিনী-শোভন

মাদক পাচারের অভিযোগে গ্রেফতার রকুল প্রীত সিংয়ের ভাই আমন

‘গান চুরি’-র অপরাধে কন্নড় সুপারস্টার রক্ষিত শেট্টির বিরুদ্ধে FIR- দায়ের

অসুস্থ যীশু সেনগুপ্তর স্ত্রী নীলাঞ্জনা, হাসপাতালে ভর্তি

কোপার ফাইনালে ঝড় তুললেন শাকিরা

কি কাণ্ড! মারামারি ঠেকাতে মুম্বই লোকালে খোদ সোনু নিগম, ভাইরাল ভিডিও

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর