এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




হুতি আক্রমণে লোহিত সাগরে ডুবেছে আরেকটি জাহাজ, ৩ ক্রু সদস্যের মৃত্যুর আশঙ্কা




নিজস্ব প্রতিনিধি: মাসব্যাপী মার্কিন নেতৃত্বাধীন বিমান হামলা অভিযান চালানো সত্ত্বেও ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বা ইউনাইটেড কিংডমের সঙ্গে যুক্ত জাহাজ কে লক্ষ্যবস্তু করে তাদের আক্রমন অব্যাহত রেখেছে। ইতিমধ্যেই ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীরা বোর্ডে থাকা একজন নাবিককে হত্যা করেছে। এবার খবরে এসেছে যে, বুধবার ভোরে বিদ্রোহীদের অভিযানে দ্বিতীয় জাহাজটিও ডুবে গেছে। লোহিত সাগরে জাহাজটির ডুবে যাওয়ার ঘটনা প্রমাণ করছে যে, ইরান-সমর্থিত হুথিদের বিদ্রোহী অভিযান ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধে জাহাজগুলিকে লক্ষ্যবস্তু করা হচ্ছে। এই অঞ্চলে মার্কিন-নেতৃত্বাধীন এক মাসব্যাপী প্রচারণা সত্ত্বেও আক্রমণটি ঘটেছে। যা নৌবাহিনীকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে সবচেয়ে তীব্র সামুদ্রিক লড়াইয়ের মুখোমুখি বলে চিহ্নিত করেছে। লাইবেরিয়ান-পতাকাযুক্ত, গ্রীক-মালিকানাধীন এবং পরিচালিত টিউটর লোহিত সাগরে ডুবে গিয়েছে। UKMTO বলেছে, “জাহাজটি ডুবে গেছে বলে মনে করা হচ্ছে।”

এছাড়া হুতিরা, তাদের নিয়ন্ত্রণ করা মিডিয়া আউটলেটগুলিতে বিদেশী প্রতিবেদনের উদ্ধৃতি দিয়ে, ডুবে যাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছে। তবে মার্কিন সামরিক বাহিনী জাহাজ ডুবে যাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেনি। টিউটর প্রায় এক সপ্তাহ আগে লোহিত সাগরে বোমা বহনকারী হুথি ড্রোন বোটে হামলার শিকার হয়েছিল। হোয়াইট হাউসের জাতীয় নিরাপত্তার মুখপাত্র জন কিরবি সোমবার বলেছেন যে, এই হামলায় ফিলিপাইনের একজন ক্রু সদস্য নিহত হয়েছেন। তবে ফিলিপাইন এখনও মৃত্যুর বিষয়টি স্বীকার করেনি। জানা গিয়েছে, হুথিরা নির্দিষ্ট জাহাজকে লক্ষ্য করে ৬০ টিরও বেশি ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন গুলি ছোড়ে, যাতে মোট চারজন নাবিককে নিহত হয়েছেন।নভেম্বর থেকে তারা একটি জাহাজ জব্দ করেছে এবং দুটি ডুবিয়েছে।

মার্কিন নেতৃত্বাধীন একটি বিমান হামলা অভিযান জানুয়ারি থেকে হুথিদের লক্ষ্যবস্তু করেছে, ৩০ মে ধারাবাহিক হামলায় কমপক্ষে ১৬ জন নিহত এবং ৪২ জন আহত হয়েছে। অন্যদিকে হুথিরা ইজরায়েল, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বা যুক্তরাজ্যের সঙ্গে যুক্ত জাহাজকে লক্ষ্য করে তাদের আক্রমণ বজায় রেখেছে তবে, তারা যে জাহাজগুলি আক্রমণ করেছে তাদের অনেকেরই চলমান ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধের সঙ্গে সম্পর্ক নেই। এখনও পর্যন্ত গাজা উপত্যকায় ইজরায়েল-হামাস যুদ্ধে ৩৭,০০০ এরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে, এবং পশ্চিম তীরে ইজরায়েলি অভিযানে আরও কয়েকশ নিহত হয়েছে। গতবছর ৭ অক্টোবর থেকে হামাসের নেতৃত্বাধীন জঙ্গিরা ইজরায়েলে হামলা চালিয়ে প্রায় ১২০০ জন নিহত এবং প্রায় ২৫০ জনকে জিম্মি করার পর যুদ্ধ পূর্ন মাত্রায় শুরু হয়। আর মার্কিন প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা সংস্থার একটি সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল যে, হামলার কারণে ডিসেম্বর থেকে লোহিত সাগরের মাধ্যমে কনটেইনার শিপিং ৯০% কমেছে। বিশ্বের ১৫% সামুদ্রিক যানবাহন সেই করিডোর দিয়ে প্রবাহিত হয়।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত অন্ধ্রের ২৫ বছর বয়সী পড়ুয়া

কেরলের সিপিআইএম সাংসদকে ফোনে হুমকি শিখ জঙ্গি সংগঠনের

গাজা শরণার্থী শিবিরে সাত দিনে ৬৩ বার বোমা হামলা ইজরায়েলের

প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসাবে কমলার নাম সুপারিশ বাইডেনের

আইফোন নিয়ে বিবাদের জেরে তুতো ভাইকে শ্বাসরোধ করে খুন ১২ বছরের কিশোরীর

লাইভ ভিডিও চলাকালীনই মৃত্যু ২৪ বছর বয়সী চায়না ফুড ব্লগারের

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর