এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




অভিভাবকদের দুশ্চিন্তা দূর করতে রাজ্য সরকার আনছে পুলকার অ্যাপ

Courtesy - Facebook and Google




নিজস্ব প্রতিনিধি: বাড়ি থেকে স্কুলে আবার স্কুল থেকে বাড়িতে, খুদে পড়ুয়াদের এই যাতায়াত এখন হয় পুলকারে(Poolcar)। বিশেষ করে যেখানে স্কুলের বাস গিয়ে পৌঁছাতে পারে না বা যে সব স্কুলের নিজস্ব বাস পরিষেবা নেই, সেখানে খুদে পড়ুয়াদের স্কুলে যাতায়াতের ক্ষেত্রে বড় মাধ্যম হয়ে উঠছে পুলকার। কলকাতার পাশাপাশি শহরতলি এবং জেলায় জেলায় শহরাঞ্চলে এই পুলকার এখন ক্রমশ নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হয়ে উঠছে অভিভাবকদের কাছে। পাশাপাশি এই পুলকার ঘিরে অভিভাবকদের মধ্যে দুঃশ্চিন্তাও বেড়ে চলেছে। কেননা প্রতি মাসে সামনে আসছে কোনও না কোনও এলাকায় পুলকার দুর্ঘটনার খবর। গত কয়েক বছরের মধ্যে সব থেকে বড় মর্মান্তিক পুলকার দুর্ঘটনা ঘটেছিল হুগলি জেলার শ্রীরামপুরে। তাতে এক খুদে পড়ুয়ার মৃত্যুর ঘটনাও ঘটে। কিন্তু তারপরেও দেখা যাচ্ছে খুদে পড়ুয়াদের নিয়ে বেপরোয়া ভাবে গাড়ি চালানো বন্ধ হচ্ছে হচ্ছে না পুলকার চালকদের। আর তার জেরে দুর্ঘটনাও বন্ধ হচ্ছে না। অভিভাবকদের চিন্তাও কমছে না। তবে এবার সেই চিন্তা দূর করতে একটি অ্যাপ(App) নিয়ে আসছে রাজ্যের ক্ষমতাসীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের(Mamata Banerjee) সরকার।

জানা গিয়েছে, রাজ্যের পরিবহণ দফতর(West Bengal State Transport Department) খুদে পড়ুয়াদের অভিভাবকদের চিন্তা দূর করতে কলকাতা, হাওড়া, দুই ২৪ পরগনা এবং হুগলি জেলায় পুলকারগুলির জন্য নতুন অ্যাপ চালু করতে চলেছে। আর তার মাধ্যমে স্কুল পড়ুয়া সন্তান কতদূরে রয়েছে তা ঘরে বসেই এবার থেকে জানতে পারবেন অভিভাবকরা। এই পরিকল্পনায় যেমন অভিভাবকদের দুশ্চিন্তা মিটবে তেমনই দুর্ঘটনাও কমবে বলে জানাচ্ছেন কলকাতা পুলিশের ট্র্যাফিক বিভাগের আধিকারিকেরাও। এতদিন অনেক অভিভাবকই বারবার চালককে কল করে পুলকারের অবস্থান জানতে চাইতেন। ফলে কানে ফোন নিয়ে কথা বলতে গিয়ে চালক দুর্ঘটনা ঘটিয়ে ফেলতেন। মাস ছয়েক আগে শ্যামবাজারে একটি পুলকার দুর্ঘটনার তদন্তে উঠে আসে, চালক এক অভিভাবকের সঙ্গে ফোনে ব্যস্ত থাকার কারণেই নিয়ন্ত্রণ রাখতে পারেননি। এবার সেই সমস্যা মিটতে চলেছে। এখন কলকাতা ছাড়াও চারটি জেলা মিলিয়ে ৬২০০টি পুলকারে যাতায়াত করে প্রায় ২ লক্ষ পড়ুয়া। স্বাভাবিক ভাবেই এই অ্যাপ চালু হলে এই ২ লক্ষ পড়ুয়ার জীবন যেমন সুরক্ষিত হবে তেমনি তাঁদের অভিভাবকেরাও নিশ্চিন্ত থাকবেন। নবান্ন(Nabanna) সূত্রের খবর, এই অ্যাপ আনার উদ্দেশ্য সফল হলে আগামী দিনে তা গোটা রাজ্যজুড়েই লাগু হবে।

রাজ্যে মহিলাদের নিরাপত্তা বাড়াতে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে সমস্ত রকমের বাণিজ্যিক গাড়ির ওপর নজরদারি চালানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। আর তার জন্য Vehicle Location Tracking Device বা VLTD আগেই বসানো হয়েছে সব বাণিজ্যিক গাড়িতে। এই ডিভাইসের মাধ্যমেই এবার পুলকারের অবস্থানও জানা যাবে। কলকাতা এবং লাগোয়া এলাকায় যে সব স্কুল রয়েছে তারমধ্যে খুব অল্প সংখ্যক স্কুলের পড়ুয়াদের জন্য নিজস্ব গাড়ি রয়েছে। সেই গাড়িগুলির অবস্থান জানার জন্য অ্যাপও রয়েছে। কিন্তু, অধিকাংশ স্কুলের সেই ব্যবস্থা না থাকায় এলাকাভিত্তিক পুলকারের ওপরেই নির্ভর করতে হয় অভিভাবকদের। সেই সব পুলকারকেও এই ব্যবস্থায় আনা হচ্ছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে মাস দুয়েকের মধ্যেই এই ব্যবস্থা চালু হয়ে যাবে বলে দাবি করছেন পরিবহণ দফতরের কর্তারা।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

চন্দ্রকোনাতে আকাশ থেকে পড়লো যন্ত্র,তাতে আবার মিটমিট করে জ্বলছে আলো

নবদ্বীপের নৃত্যশিল্পীর রহস্যজনক মৃত্যু বিহারে, খুনের অভিযোগ পরিবারের

দশোহারা তিথিতে গাছই ভগবান রূপে পূজিত হয় নদীয়ার হাঁসখালির ফতেপুরে

সিপিএম ছেড়ে তৃণমূলের যোগ দিলেন জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য পঙ্কজ

বহরমপুরে তৃণমূল বিজেপি’র সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে ব্যাপক বোমাবাজি, এলাকায় কেন্দ্রীয় বাহিনী

দুর্ঘটনায় বাইক আরোহীর মৃত্যুতে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ,দেগঙ্গায়  হুলুস্থুল কাণ্ড  

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর