এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




প্রজ্বল রেভান্নার ভাই সুরজ ‘সমকামী’, গ্রেফতার হলেন দলেরই কর্মী

Courtesy - Facebook




নিজস্ব প্রতিনিধি: দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচ ডি দেবগৌড়ার(H D Devagowda) নাতি তথা কর্নাটক বিধান পরিষদের সদস্য সুরয রেভান্না(Suraj Revanna) নাকি ‘সমকামী’(Gay)। জনতা দল সেকুলারের(JDS) এই নেতা নাকি নিজের ফার্ম হাউসে দলেরই কর্মীদের নিয়ে গিয়ে তাঁদের বাধ্য করেন তাঁর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হতে। যারা রাজী হন না তাঁদের জোর পূর্বক সঙ্গমে লিপ্ত হতে বাধ্য করা হয় বা তাঁদের ধর্ষণ করা হয়। সুরযের বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ তুলেছিলেন দলেরই যুব শাখার কর্মী চেতন কে এস(Chetan K S) এবং তার শ্যালক। সেই অভিযোগ ইতিমধ্যেই কর্ণাটক তথা দক্ষিণ ভারতের রাজনীতিতে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে দিয়েছে। কেননা এই সুরযেরই দাদা হলেন প্রাক্তন জেডিএস সাংসদ প্রজ্বল রেভান্না যাকে ধর্ষণ এবং যৌন নিগ্রহের মামলায় পুলিশ গ্রেফতার(Arrested) করেছে। তবে চেতনের তোলা অভিযোগের জেরে সুরযের সহকারী শিবকুমার এ বিষয়ে পুলিশের কাছে চেতনের নামে পাল্ট অভিযোগ জানাতেই গ্রেফতার হয়েছেন চেতন ও তার শ্যালক। এখন শিবকুমারের দাবি, চেতন নাকি সুরযের কাছ থেকে ৫ কোটি টাকা দাবি করেছিলেন। সেই টাকা না দিলে তাঁকে যৌন হেনস্থার মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর হুমকিও দিয়েছিলেন। পরে সেই টাকা দরাদরি করে ২ কোটিতে নামে। 

শিবকুমারের দাবি, রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের অছিলায় সুরজের সঙ্গে পরিচিতি বাড়ান চেতন। ‘সুরজ রেভান্না ব্রিগেড’ নামে একটি মঞ্চও গড়েছিলেন। এর পরে প্রজ্বলকাণ্ড নিয়ে হইচই শুরু হতেই চেতন ‘পরিস্থিতি বুঝে’ যৌন হেনস্থার মিথ্যা অভিযোগের তাঁকে ফাঁসানোর হুমকি দিতে থাকেন। দাবি করেছিলেন ৫ কোটি টাকা না দিলে সুরযকে ফাঁসানো হবে যৌন হেনস্থার মিথ্যা মামলায়! পরে সেই দাবি কমে দু’কোটিতে দাঁড়ায়। শিবকুমার চেতনের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতেই পুলিশ চেতন ও তার শ্যালকের বিরুদ্ধে আইপিসি ৩৮৪, ৫০৬ ও ৩৪ নম্বর ধারায় এফআইআর দায়ের করে তাদের গ্রেফতার করেছে। তবে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে, সুরযের বিরুদ্ধে চেতন যে ‘সমকামী’তার অভিযোগ এনেছে তা পুরোপুরি মিথ্যা নয়। দলের যুব শাখার অনেক পুরুষ কর্মীকেই নাকি সুরযের শিকার হতে হয়েছে। কেউ দলের পদ প্রাপ্তি বা ভোটের টিকিট পাওয়ার জন্য তা মেনে নিয়েছেন, কেউ আবার দল ছেড়ে দিয়েছেন বা বসে গিয়েছেন। তবে যে সব অভিযোগ তোলা হচ্ছে, তা সবই বছর ৩ আগেকার। ফলে পাল্টা প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে যে, এতদিন বাদে কেন এইসব অভিযোগ সামনে আসছে। অনেকেই মনে করছেন, হাতি পাঁকে পড়লে যেমন ব্যাঙেও লাথি মারে, তেমনি রেভান্না পরিবারের সঙ্গে সেটাই হচ্ছে।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

ফের উত্তাল পাকিস্তান, রাতারাতি পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়িয়ে হৈচৈ ফেলে দিল সরকার

জম্মু-কাশ্মীরে লাগাতার সেনা জওয়ানদের মৃত্যু নিয়ে মোদিকে তোপ খাড়গের

কাশ্মীরের ডোডায় জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষে মেজর-সহ চার সেনা জওয়ান শহিদ

বিহারে ইন্ডিয়ার জোটসঙ্গী প্রাক্তন মন্ত্রীর বাবাকে নৃশংসভাবে খুন, চাপে পড়ে সিট গঠন নীতীশের

উদ্ধবের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করা হয়েছে, দাবি জোশি মঠের শঙ্করাচার্যের

Zomato-তে ১৩৩ টাকার মোমো অর্ডার দিয়ে তরুণীর পকেটে এল ৬০,০০০, কীভাবে?

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর