এই মুহূর্তে

পুজো সফরে কলকাতায় আসছেন মহারানী এলিজাবেথ

নিজস্ব প্রতিনিধি: হাতে গোনা আর মাত্র কয়েকটা দিন। তারপরেই বেজে উঠবে সেই পুজোর ঢাক যার জন্য সারা বছর অপেক্ষা করে বাঙালি। আর ২০২২ এর পুজো তো বাঙালির কাছে এবার আরও গর্বের। কেননা কলকাতার(Kolkata) দুর্গাপুজো(Durgapuja) পেয়ে গিয়েছে ইউনেস্কোর(UNESCO) ওয়ার্লড হেরিটেজ(World Heritage) সম্মান। সেই সম্মান পাওয়ার জেরেই বাংলার সেরা উৎসব এবার শুরু হয়ে যাচ্ছে ১ মাস আগে থেকেই। সেই উৎসবেই এবার বাড়তি চমক আসছ খোদ বিলেতের মাটি থেকে। পুজোর সময়েই কলকাতা সফরে আসছেন গ্রেট ব্রিটেনের(Great Britain) অধিশ্বরী মহারানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ(Queen Second Elizabeth)। থাকবেন তিনি মধ্য কলকাতার চালতাবাগানের(Chaltabagan) মণ্ডপে। কী চমকে যাচ্ছেন তো! যাওয়ারই তো কথা। নাহ সশরীরে আসছেন না মহারানী। তবে তিনি আসছেন থিমের মধ্যে দিয়ে। অসুরনিধন করতেই মহারানী বিলেতের মাটি থেকে চলে আসছেন কলকাতার বুকে। মানে মা দুর্গাকেই এখানে দেখা যাবে মহারানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ হিসাবে।

মধ্য কলকাতার চালতাবাগান এলাকার পুজো শহরে বেশ জনপ্রিয়। মূলত লোহাপট্টির ব্যবসায়ীদের এই পুজো প্রতিবছর পুজোপ্রেমীদের চমক দেয়। এবারেও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। ৭৮তম বছরে চালতাবাগান সর্বজনীনের চমক গ্রেট ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথকে মহিষাসুরমর্দিনী হিসেবে কলকাতায় তুলে ধরা! কলকাতার দুর্গাপুজো ইউনেস্কোর ওয়ার্লড হেরিটেজ সম্মান পাওয়ার পর এ বছর কলকাতার ছোট-বড় প্রায় সব পুজোই নানা চমক দিতে চাইছে। চালতাবাগানের চমক ব্রিটেনের মহারানীকে দূর্গারূপে কলকাতায় হাজির করানো। চালতাবাগান সর্বজনীনের দাবি, এবার তাঁদের থিমের নাম ‘যাপনের উদযাপন’। যেহেতু কলকাতার দুর্গাপুজো ইউনেস্কোর ওয়ার্লড হেরিটেজ তকমা পেয়েছে। তাই মনে রাখার মতো বিশেষ কিছু করতেই এই দ্বিতীয় এলিজাবেথের অবতারণা। মা দুর্গার প্রতিমা তৈরি হবে মহারানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের আদলে। তা৬র সঙ্গে থাকা লক্ষ্মী, সরস্বতী, কার্তিক ও গণেশকে সেই ভাবেই তৈরি করা হবে। প্রতিমা নির্মাণের দায়িত্বে থাকছেন শিল্পী সুবল পাল। মণ্ডপ নির্মাণের ক্ষেত্রেও চমক থাকবে দর্শকদের জন্য। মণ্ডপ হচ্ছে ব্যাকিংহাম প্রাসাদের আদলে।

কিন্তু কিছু প্রশ্নও থাকছে এই বিষয়ে। এটা যতটা না প্রশ্ন তার থেকেও বেশি আশঙ্কার। দেশ এবার স্বাধীনতার ৭৫তম বর্ষ উদযাপন করছে। কেন্দ্র সরকারের বছরভর এই নিয়ে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। কিন্তু দেশের এই গৌরবময় বছরে কেন সেই ব্রিটেনের রানীকে পুজো করার আয়োজন যে ব্রিটেনের হাতেই দেশকে ১৯০ বছর পরাধীন থাকতে হয়েছে? এই প্রশ্ন কিন্তু ইতিমধ্যেই উঠতে শুরু করেছে এলাকায়। যারা এই প্রশ্ন তুলছেন তাঁরা এটাও বলছেন, এর থেকে আরও ভাল হত যদি ভারতমাতার আদলে মা দুর্গাকে এখানে রূপ দেওয়া হতো। পুজো যদি করতেই হয় দেশমাতৃকাকেই করা উচিত। ব্রিটেনের রানীকে কেন পুজো করা হচ্ছে? এই প্রশ্নের জবাব আপাতত না মিললেও অনেকেই কিন্তু মনে করছেন এই ঘটনাকে ঘিরে এবার আদালতে পুজো বন্ধ করার দাবি নিয়ে গেরুয়া শিবির থেকে কেউ না কেউ ছুটবেন। গতবছর যেমন দমদম পার্ক ভারতচক্রের পুজো বন্ধ করে দেওয়ার জন্য মামলা দায়ের হয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টে। যদিও তা বন্ধ করেনি আদালত। এবার দেখার বিষয় চালতাবাগান নিয়ে আগামী দিনে আদালতে কোনও যুদ্ধ শুরু হয় কিনা।

Published by:

Koushik Dey Sarkar

Share Link:

More Releted News:

আগামী বছর উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু কবে, দিনক্ষণ জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

‘লাখপতি দিদি’ হওয়ার প্রস্তাব ফেরাচ্ছেন বাংলার মহিলারা, নাজেহাল বিজেপি

৬ বছরের জন্য শেখ শাহজাহানকে বহিষ্কার করল তৃণমূল কংগ্রেস

শাহজাহান গ্রেফতার হতেই আদালতের দ্বারস্থ ইডি

আদালত থেকে সরাসরি ভবানী ভবনে শাহজাহান

কেন্দ্রের আইনের প্রতিবাদে ৫ মার্চ রাজ্যে পরিবহণ ধর্মঘট

Advertisement

এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর