এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine

ক্যান্সারে বিদ্ধ বাংলা, ২০২৫-এ আক্রান্ত হবেন অন্তত ১.২৫ লক্ষ মানুষ

নিজস্ব প্রতিনিধি: কর্কটে(Cancer) বিদ্ধ বঙ্গ(Bengal)। আক্রান্তের নিরিখে শীর্ষে উত্তর ২৪ পরগনা(North 24 Pargana)। তার পরেই রয়েছে দুই বর্ধমান, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, মুর্শিদাবাদ ও কলকাতা(Kolkata)। পরের ধাপে রয়েছে হুগলি ও হাওড়া। দেশে প্রতি ১ লক্ষ জনসংখ্যার মধ্যে ৯৪ জন পুরুষ ও ১০৪ জন মহিলা ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছেন প্রতি বছর। সেই হিসাবে বাংলায় এখন ক্যান্সারে আক্রান্তের সংখ্যা হওয়া উচিত ১ লক্ষ ৭ হাজার। কিন্তু হিসাব আছে ৮০ হাজারের। বাকি ২৭ হাজারের কোনও তথ্য নেই যা উদ্বেগের আরও একটা বড় বিষয়। হয় তাঁরা জানেনই না যে তাঁরা ক্যান্সারে আক্রান্ত, না হয় তাঁরা ভিন রাজ্যে চিকিৎসা করাচ্ছেন। বিশেষজ্ঞদের অবশ্য দাবি, এই ২৭ হাজার মানুষ জানেনই না তাঁরা শরীরে ক্যান্সার নিয়ে ঘুরছেন। একদম শেষ মুহুর্তে হয়তো তাঁরা বা তাঁদের পরিবারের মানুষজন বুঝতে পারবেন কর্কট কেড়ে নিচ্ছে মহার্ঘ্য জীবন। এভাবেই যদি চলে তাহলে আর ২ বছরের মধ্যে অর্থাৎ ২০২৫ সালে দেখা যাবে বাংলার প্রায় ১.২৫ লক্ষ মানুষ ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছেন।

আরও পড়ুন LIC Plan আছে, থাকলে এখনই PAN Link করুন

ন্যাশনাল ক্যান্সার রেজিস্ট্রি প্রোগ্রামের(NCRP) রিপোর্ট সম্প্রতি প্রকাশিত হচ্ছে। সেই রিপোর্ট বলছে, বাংলায় কার্যত হু হু করে বেড়ে চলেছে ক্যান্সার। সেই ক্যান্সার আবার বেশি করে ছড়াচ্ছে খাস কলকাতা ও মহানগরের আশেপাশে থাকা জেলাগুলিতে। জানলে আরও চমকে যাবেন এই রোগে যারা আক্রান্ত হচ্ছেন তাঁদের মধ্যে একটা বড় অংশই আক্রান্ত হচ্ছেন ভুল Lifestyle এর জন্য। জীবনযাত্রার মানের অবনমন, স্থূলত্ব, শাকসব্জি ছেড়ে ফ্যাট ও কার্বোহাইড্রেট-সমৃদ্ধ খাবারের প্রতি ঝোঁক এবং ধূমপান ও মদ্যপানের অভ্যাস ঊর্ধ্বমুখী হওয়াতেই ক্যান্সার বাড়ছে। আর এটাই কার্যত শহুরে জীবনযাপন বা Lifestyle হিসাবেই চিহ্নিত হয়। তবে উদ্বেগের সব থেকে বড় ছবি আটাই যে, বৃহত্তর কলকাতা বাদ দিলে বাংলার বাকি জেলাগুলিতে ক্যান্সার সেভাবে চিহ্নিত হচ্ছে না। হিসাব মতো এখন রাজ্যের প্রায় ২৭ হাজার মানুষ জানেনই না তাঁরা ক্যান্সারে আক্রান্ত। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও ক্যান্সার চিকিৎসার পরিকাঠামোর অভাবে ওই রোগীরা চিহ্নিত হচ্ছেন না। আর এই ছবিটাই কিন্তু বলে দিচ্ছে ক্যান্সার এখনও পর্যন্ত ভয়াবহ ভাবে আন্ডার-রিপোর্টেড একটা অসুখ এই বাংলার বুকে। আবার রাজ্যস্তরে ক্যান্সার ছড়িয়ে পড়ার অন্যতম বড় কারণ হিসাবে উঠে আসছে গুটখা ও পান।

আরও পড়ুন কলকাতা হাইকোর্টের পরবর্তী প্রধান বিচারপতি টি এস শিবজ্ঞানম

তাহলে উপায়! কীভাবে বাংলায় কমবে ক্যান্সার? বিশেষজ্ঞদের দাবি, শহুরে জীবনযাপনে কিছুটা হলেও রাশ টানতে হবে। ফ্যাট ও কার্বোহাইড্রেট-সমৃদ্ধ খাবারের দিকে বেশি না তাকিয়ে বেশি করে প্রোটিন ও শাকসবজি খেতে হবে। ধূমপান আর মদ্যপান যতটা সম্ভব কমিয়ে একেবারে ছেড়ে দিতে পারলে খুব ভাল হয়। জীবনযাপনের মান উন্নত করতে হবে। এই মান বলতে ভাল ভাল জামাকাপড় পরা বা ভালো ভাল জায়গায় ঘুরে বেড়ানো নয়। ভাল জীবনযাপন মানে ঠিক সময়ে ঘুম থেকে ওঠা, নিয়মিত হালকা শরীরচর্চা, ঠিক সময়ে খাওয়াদাওয়া করা এবং অবশ্যই ৮ ঘন্টা ঘুমানো এবং রাতে তাড়াতাড়ি শোয়া। সেই সঙ্গে ধূমপান আর মদ্যপান যতটা সম্ভব কম করা। গুটখা বা পান তো একদমই নয়। চেষ্টা করুন বছরে একবার হলেও চিকিৎসকের কাছে গিয়ে চেকআপ করিয়ে নেওয়া। বিশেষ করে বয়স যদি ৪০ এর ওপর হয় তাহলে আরও বেশি করে এগুলো মেনে চলুন। মহিলারা বাড়িতেই নিজের স্তন ও জরায়ু চেক করুন। অস্বস্তিদায়ক কিছু দেখলে বা বুঝলেই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। লুকিয়ে রাখবেন না কিছুই। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে, খুব হালকা না দেওয়ার মতো জিনিসই পরের ধাপে গিয়ে ক্যান্সারের চেহারা নিচ্ছে। তাই কোনও কিছুই অবহেলা করবেন না।  

Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

নকশালবাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রিত নাবালিকা গণধর্ষণের শিকার, ধৃত ৫

ঝাড়গ্রামে প্রচণ্ড গরমে কাদায় গড়াগড়ি দুই হাতির

আমাকে মারার পরিকল্পনা করা হয়েছিল, সভা থেকে বিস্ফোরক অভিষেক

২০০ গণ্ডি পার করবে না বিজেপি, রাজ্য ধরে ধরে হিসাব দিলেন মমতা

‘এনআরসি, সিএএ করতে দেব না’, ফের হুঙ্কার মমতার

২৬ হাজার শিক্ষকের চাকরি যাওয়ার মধ্যেই লক্ষাধিক কর্মসংস্থানের ঘোষণা মমতার

Advertisement
এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর