এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




আসানসোল-দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলে বন্ধ কারখানার জমিতে নতুন শিল্পদ্যোগ রাজ্যের

Courtesy - Facebook and Google




নিজস্ব প্রতিনিধি: উনিশের ভোটে আসানসোল ও বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্র গিয়েছিল বিজেপির দখলে। কিন্তু পরে আসানসোল চলে গিয়েছিল তৃণমূলের দখলে। এবারে ২৪’র ভোটে সেই আসানসোল ধরে রেখে বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রও তৃণমূল(TMC) বিজেপির কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে। সেই হিসাবে সামগ্রিক ভাবে আসানসোল-দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলে(Asansol-Durgapur Industrial Area) তৃণমূলের নিরঙ্কুশ আধিপত্য স্থাপিত হয়েছে। সেই জয়ের সুবাদেই এবার এই শিল্পাঞ্চল এলাকার বন্ধ কলকারখানার জমিতে নতুন শিল্প স্থাপনের দিকে নজর দিচ্ছে রাজ্যের ক্ষমতাসীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের(Mamata Banerjee) সরকার। গত বৃহস্পতিবার নবান্ন সভাগৃহে মুখ্যমন্ত্রী শিল্পপতিদের সঙ্গে যে বৈঠক করেছিলেন সেখানে ডাক পেয়েছিলেন আসানসোল-দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলের ব্যবসায়ীদের প্রতিষ্ঠান Federation of South Bengal Chamber of Commerce and Industry’র প্রতিনিধিরা। সেখানেই তাঁরা মুখ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ জানান, আসানসোল দুর্গাপুরে বন্ধ শিল্পের জমি ব্যবহারে উদ্যোগী হোক রাজ্য। ব্যবসায়ীদের দাবি, প্রস্তাবে খুশি হয়ে দ্রুত বিষয়টি নিয়ে মুখ্যসচিব বি পি গোপালিকাকে নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালে বিধানসভা নির্বাচন জিতেই আসানসোল-দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলে নতুন বিনিয়োগ আনতে উদ্যোগী হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এখন নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই শিল্পাঞ্চল নিয়ে বিশেষ ভাবনা চিন্তা শুরু করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার কয়েক মাসের মধ্যেই পানাগড় শিল্পতালুকে পা রেখেছিলেন মমতা। সেখানের এক বেসরকারি কারখানার শিলান্যাস করে কর্মসংস্থানের বার্তা দিয়েছিলেন তিনি। তারপর পানাগড় ও অণ্ডালে একাধিক শিল্প গড়ে উঠে। তারপরই শিল্পাঞ্চল জুড়ে চর্চা ছিল, বন্ধ কারখানার জমিতে নতুন শিল্পদ্যোগ আনতে উদ্যোগী হচ্ছে রাজ্য। বস্তুত আসানসোল-দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলের মানুষজনের দীর্ঘদিনের দাবি, বন্ধ কলকারখানার জমিতে নতুন শিল্প গড়ে উঠুক। তাতে এলাকায় কর্মসংস্থান বাড়বে। এখন শিল্পাঞ্চলের রায় তৃণমূলের পক্ষে আসায় মুখ্যমন্ত্রীও বিষয়টি নিয়ে নতুন করে ভাবতে শুরু করেছেন। এখন আসানসোল দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলের বহু বন্ধ কলকারখানাগুলি থেকে একদিকে যেমন রাতের আঁধারে লোহা কাটিং হয়ে পাচার হয়ে যাচ্ছে, তেমনি বন্ধ কারখানার জমি দখল করে অসাধু ব্যবসা হয়ে যাচ্ছে। বেশ কিছু ক্ষেত্রে জমির চরিত্র পরিবর্তিত হয়ে সেখানে প্রোমোটারিও হচ্ছে।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

চাকরি বাতিলের মামলায় স্থগিতাদেশ বহাল রাখল সুপ্রিম কোর্ট

৫৫ হাজার অসমাপ্ত বাড়ির কাজ শেষের জন্য টাকা ছাড়ছে রাজ্য

পুরুলিয়ায় পরপর পথ দুর্ঘটনায় নিহত ৩, প্রাণ গেল ৮ বছরের নাবালিকার

তারকেশ্বরের শ্রাবণী মেলা উপলক্ষে পূর্ব রেলওয়ের ইএমইউ স্পেশাল ট্রেন চালানোর ঘোষণা

বাগনানে তৃণমূলকে ভোট না দেওয়া মানুষকেও রথের শুভেচ্ছা জানালেন বিধায়ক অরুনাভ সেন

বাদুড়িয়াতে মধুচক্রের আসরের বিরুদ্ধে গ্রামবাসীদের বিক্ষোভ, অবরোধ তুলতে গিয়ে আক্রান্ত পুলিশ

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর