এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




বুথফেরত সমীক্ষায় বাংলায় বিজেপিকে ২১-৩১ আসন দেওয়া তিন ‘হুজুর’কে চিনে নিন




নিজস্ব প্রতিনিধি: সদ্য সমাপ্ত লোকসভায় বাংলায় বয়ে গিয়েছে সবুজ ঝড়। রাজ্যের ৪২টি আসনের মধ্যে ২৯টি আসনে জয়ী হয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস। গতবারের চেয়ে সাতটি আসন বেশি পেয়েছে। উল্টোদিকে বিজেপি জয়ী হয়েছে ১২টি আসনে। গতবারের চেয়ে ছয়টি আসন কম পেয়েছে নরেন্দ্র মোদি-অমিত শাহের দল। অথচ বুথফেরত সমীক্ষায় বাংলায় উল্টো ফলের আভাস দিয়েছিল তিনটি সমীক্ষক সংস্থা। আর ওই তিন সংস্থার কর্ণধারই ‘বিজেপি ঘনিষ্ঠ’ হিসেবে পরিচিত। ফল প্রকাশ হতেই ওই তিন হুজুরের একজন অবশ্য ইতিমধ্যেই সংশ্লিষ্ট ‘ধাপ্পাবাজির’ অভিযোগ খারিজ করতে লাইভ টিভি শোয়ে কান্নার নাটক করেছেন।

গত পয়লা জুন লোকসভা ভোটের শেষ দফার পরেই টিআরপি বাড়ানোর উদ্দেশে অবৈজ্ঞানিক বুথফেরত সমীক্ষা সম্প্রচার করেছিল নেটা নাগরিকদের কাছে ‘বিজেপিপন্থী’ গদি মিডিয়া হিসাবে পরিচিত একাধিক চ্যানেল। ‘আজ তক’ ও ‘ইন্ডিয়া টুডে’ চ্যানেলের হয়ে বুথফেরত সমীক্ষা চালানোর দায়িত্ব পেয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের বন্ধু এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের ‘বিশ্বস্ত’ হিসাবে পরিচিত প্রদীপ গুপ্তের অ্যাক্সিস মাই ইন্ডিয়া। গোটা দেশে এনডিএ ৩৬১ থেকে ৪০১টি আসন পেতে পারে বলে তথাকথিত বুথফেরত সমীক্ষায় আভাস দিয়েছিল সংস্থাটি। আর বাংলায় বিজেপিকে সর্বনিম্ন ২১ ও সর্বোচ্চ ৩১টি আসন দিয়েছিল। উল্টোদিকে তৃণমূল ১১ থেকে ১৪টি আসন জিততে পারে বলে রায় দিয়েছিল।

বুথফেরত সমীক্ষা না মেলাতে পারার দুর্দান্ত ট্র্যাক রেকর্ড রয়েছে স্বঘোষিত সমীক্ষক সংস্থা ‘সি ভোটার’ এর। এর কর্ণধার যশোবন্ত দেশমুখ বিজেপির শীর্ষ নেতাদের বিশ্বস্ত হিসাবেই পরিচিত। গত বিধানসভা ভোটে বাংলায় বিজেপি’র আসন অনেক বাড়িয়ে দেখার অভিযোগ উঠেছিল সংস্থার বিরুদ্ধে। বরাবরেই মতো এবারেও লোকসভা ভোটে ‘এবিপি নিউজ নেটওয়ার্কের’ হয়ে বুথফেরত সমীক্ষা চালিয়েছিল ‘সি ভোটার’। বুথফেরত সমীক্ষায় বাংলায় বিজেপি ২৩ থেকে ২৭টি আসন পাচ্ছে বলে জোর গলায় দাবি করেছিল। আর গোটা দেশে এনডিএ ৩৫৩ থেকে ৩৮৩ আসন পাবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছিল।

‘বিজেপি ঘনিষ্ঠ’ শিল্পপতি গৌতম আদানির মালিকানাধীন এনডিটিভি সম্প্রচার করেছিল ‘জন কী বাত’ নামে এক ‘বিশ্বাসযোগ্যহীন’ সমীক্ষক সংস্থার বুথফেরত সমীক্ষা। যার কর্ণধার প্রদীপ ভাণ্ডারী বিজেপির কট্টর সমর্থক হিসাবে পরিচিত। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে নিয়ে লেখা বইয়ের লেখক সুভাষ চন্দ্রের ‘জি নিউজ’ এর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। কিন্তু চলতি বছরের শুরুতে তাঁকে বের করে দিয়েছিল ‘জি নিউজ’ কর্তৃপক্ষ। মোদি ভক্ত প্রদীপ ভাণ্ডারীর সংস্থা আভাস দিয়েছিল, বঙ্গে বিজেপি জিতবে ২১ থেকে ২৬ আসনে। আর গোটা দেশে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ পাবে ৩৬২ থেকে ৩৯২ আসন। বাস্তবে তিন হুজুরের সংস্থার বুথফেরত সমীক্ষার সঙ্গে বাস্তব ফলের দুরত্ব কয়েক যোজন।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

সহ শিক্ষকের মারে আঙুল ভাঙল প্রধান শিক্ষকের, হুলুস্থুলকাণ্ড রানিগঞ্জের স্কুলে

‘আজই Gateman-কে Shoot করবো’, বন্দুক হাতে স্কুল দাপালো ছাত্র

মা ও শিশুপুত্রর রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার বীরভূমের নলহাটিতে

আমলাদের কাজের বার্ষিক মূল্যায়নের ওপরেও এবার থাকছে মুখ্যমন্ত্রীর নজরদারি

মায়ের মৃতদেহের সামনে মেয়ের বিয়ে,শ্মশানেই সিঁদুর দান ও মালা বদল

পুলকারে দুর্ঘটনা রুখতে এক গুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করতে চলেছে রাজ্য

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর