এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine

নয়া অর্থবর্ষে বাংলার ১১ লক্ষ ৮০ হাজার স্বনির্ভর গোষ্ঠীকে ৩০০০০ কোটি টাকার ঋণ

Courtesy - Facebook and Google

নিজস্ব প্রতিনিধি: ‘বাংলার মেয়েরা(Women of Bengal) ব্যাঙ্ক থেকে লোন নিয়ে পালিয়ে যায় না। অনাদায়ী ঋণের পরিমাণ দুই শতাংশেরও কম। অনেকে তো ঋণ নিয়ে পালিয়ে গেল। কেন্দ্র কারও কারও আবার হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণ মুকুবও করে দিল। তবে আসন্ন অর্থবর্ষে বাংলার স্বনির্ভর দলের(Self Help Groups) মেয়েদের ৩০ হাজার কোটি টাকা(30 Thousand Crore Rupees) ঋণ(Loan) দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে রাজ্য। এর ফলে আমাদের রাজ্যের ১১ লক্ষ ৮০ হাজার গোষ্ঠী উপকৃত হবে।’ এমনই ঘোষণা করেছেন রাজ্যের পঞ্চায়েত ও সময়বায় মন্ত্রী প্রদীপ মজুমদার(Pradip Majumdar)। শুক্রবার বিকালে রাজ্যের ইস্পাতনগরী দুর্গাপুরের বুকে দুই বর্ধমান, বাঁকুড়া, বীরভূম ও উত্তর ২৪ পরগনা জেলার স্বনির্ভর গোষ্ঠীদের উৎপাদিত সামগ্রী নিয়ে সৃষ্টিশ্রী মেলার উদ্বোধন করতে এসে এই ঘোষণা করেছেন।   

মেলায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে প্রদীপবাবু জানান, ‘আদালত তো বলে দিয়েছে যোগ্য মানুষদের ১০০ দিনের কাজের টাকা আটকে রাখা অন্যায়। তারপরেও কেন্দ্র সরকার তা আটকে রেখেছে। স্বনির্ভর দলের মেয়েরা এগিয়ে না এলে ১০০ দিনের কাজের টাকা বন্ধের জন্য‌ গ্রামীণ অর্থনীতির হাল আরও শোচনীয় হতো। গোষ্ঠীর কাজ এখন গ্রামে বিকল্প কর্মসংস্থানের পথ দেখাচ্ছে। এটা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের(Mamata Banerjee) কৃতিত্ব। তাঁর দেখানো পথে হেঁটেই এটা সম্ভব হয়েছে। এই মেলা হচ্ছে যেখানে সেই সিটি সেন্টার দুর্গাপুর হাট মুখ্যমন্ত্রী তৈরি করেইছেন গ্রামীণ শিল্পীদের তৈরি সামগ্রী বিক্রির জন্য। দুর্গাপুরে স্বনির্ভর দলের তৈরি জিনিস বিক্রির জন্য একটি স্থায়ী স্টল করা হবে। শুধু তাই নয়, স্বনির্ভর দলের তৈরি জিনিস এবার বিক্রি হবে ভ্রাম্যমাণ ভ্যানেও।’

প্রদীপবাবু আরও জানিয়েছেন, ‘বাংলার মেয়েদের আত্মনির্ভরতার পথ দেখাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। আর বাংলার মেয়েদের হাতের কাজ দেশকে পথ দেখাচ্ছে। কলকাতার বুকে ১২ দিন ধরে হওয়া মেলায় ২৩ কোটি টাকার সামগ্রী বিক্রি হয়েছে। কীভাবে এই সাফল্য তা জানতে চেয়েছেন কেন্দ্রীয় সরকারের আমলারা। আমাদের কাছে তাঁরা তা শিখতে চান। আমাদের সাফল্য‌ যাতে অন্য রাজ্যও পায়। চলতি অর্থবর্ষে স্বনির্ভর দলের সদস্যরা ব্যবসা করার জন্য ২১ হাজার কোটি টাকা ঋণ নিয়েছে। সেই ঋণ শোধও হয়েছে। কেউ টাকা মেরে পালিয়ে যায়নি।’

Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

চাষের জমিতে বিদ্যুতের ছেঁড়া তার জড়িয়ে মৃত্যু দুই কৃষকের

১জুন শেষ দফার ভোটের দিন কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাস জারি

ভক্তিনগর থানার পুলিশ গৃহস্থ বাড়ির ভেতর থেকে খোঁজ পেল জুয়ার বোর্ডের, গ্রেফতার ১১

রিমল ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে নদিয়াতে ব্যাপক ক্ষতি আখ ও কলা গাছের

কৃষ্ণগঞ্জে তিন দিন ধরে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন সীমান্তবর্তী বানপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র

রথযাত্রার আগেই মুখ্যমন্ত্রীর হাতেই উদ্বোধনের সম্ভাবনা দিঘার জগন্নাথ মন্দিরের

Advertisement
এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর