এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine

ভাইরাল হওয়া অডিও ঘিরে তোলপাড় বঙ্গ বিজেপি

Courtesy - Google

নিজস্ব প্রতিনিধি: শাহি সভার ২৪ ঘন্টার মধ্যেই বাংলার নানা সমাজমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে দুই বিজেপি নেতার কথোপকথন। আর সেই কথোপকথনের বিষয় এখন বঙ্গ রাজনীতিতে যতনা ঝড় তুলেছে তার থেকেও বেশি ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়েছে বঙ্গ বিজেপির(Bengal BJP) অন্দরে। এমনিতেই শাহি সভা সুপারডুপার ফ্লপ হওয়ার জন্য বঙ্গ বিজেপির নেতারা এখন মুখ লুকিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। তারওপর নানা Social Media-তে ছড়িয়ে পড়া দুই বিজেপি নেতার অডিও ভাইরাল হয়ে যাওয়ায় কার্যত মুখ পুড়ছে বিজেপির। কেননা সেই অডিওতে এক বিজেপি নেতা স্বীকার করে নিচ্ছেন যে, ২৪’র ভোটযুদ্ধে(General Election 2024) বাংলা থেকে বিজেপি মাত্র ৩টি আসন পাবে আর তৃণমূল(TMC) পাবে ৩৯টি। যে দুই নেতার অডিও ভাইরাল হয়েছে তার মধ্যে একজন হলেন কংগ্রেস ও তৃণমূল ঘুরে বিজেপিতে যাওয়া বিষ্ণুপুরের সাংসদ(MP of Bishnupur Constituency) সৌমিত্র খান(Soumitra Khan)। অন্তত তেমনটাই দাবি করা হচ্ছে।

কী বলেছেন সৌমিত্র? বিষ্ণুপুরের সাংসদ কার সঙ্গে কথা বলছিলেন বা তাঁর এই অডিও কে এইভাবে Social Media-তে ছড়িয়ে দিল তা এখনও সামনে আসেনি। কিন্তু সেই কথোপকথনের মাঝে সৌমিত্র দাবি করেছেন, ২৪’র যুদ্ধে বিজেপি মাত্র ৩টি আসন পাবে। যদিও তিনি এটা উল্লেখ করেননি যে সেই ৩টি কোন আসন। কিন্তু তিনি সেই কথোপকথনেই বঙ্গ বিজেপি এবং বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে রীতিমত কাঠগড়ায় তুলেছেন এবং তাঁদের তীব্র সমালোচনাও করেছেন। অডিও অনুযায়ী সৌমিত্রের দাবি, বাংলা দখল করতে আসা বিজেপি এখানে হিন্দুদের মধ্যেও ভাগাভাগির রাজনীতি করছে। আদিবাসী, মতুয়া, রাজবংশী সব আলাদা করে দিচ্ছে। সবার মধ্যে বিভাজন ঘটিয়ে দিচ্ছে। কার্যত যে সাংসদ দফায় দফায় পৃথক জঙ্গলমহল রাজ্যের দাবি তুলেছেন, এখন তিনিই বিজেপির বিভাজনের রাজনীতির সমালোচনা করছেন দলেরই নেতার কাছে। শুধু তাই নয়, তিনি বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছেন, বঙ্গ বিজেপির নেতৃত্বের বিরুদ্ধে। দাবি করেছেন, বঙ্গ বিজেপির নেতৃত্ব যাদের পছন্দ করে না তাঁদের ব্যাক সিটে পাঠিয়ে দেয়। যারা দলের জন্য লড়াই করে তাঁদের কোনও দাম দেয় না।

এর পাশাপাশি সৌমিত্রের দাবি, বাংলার যে ৪জন সাংসদ কেন্দ্রে প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন তাঁদের মধ্যে কেন্দ্রীয় জাহাজ প্রতিমন্ত্রী তথা উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ এবং মতুয়া সমাজের ধর্মীয় প্রাণকেন্দ্র ঠাকুরনগরের ঠাকুরবাড়ির বড় ছেলে শান্তনু ঠাকুর ভিন্ন আর কেউই কাজের নয়। তাঁরা সব নিষ্কর্মের ঢেঁকি। সৌমিত্রের এটাও দাবি, নিশীথ প্রামাণিক মন্ত্রী হলেও ওনার এলাকার একটা ও বুথের একটাও কোনও বিজেপি কর্মীর কোনও লাভ হয়নি। আর সৌমিত্রের এই সব দাবি ঘিরেই এখন বঙ্গ বিজেপিতে রীতিমত তোলপাড় শুরু হয়ে গিয়েছে। যদিও এটা এখনও জানা সম্ভব হয়নি যে Social Media-তে ছড়িয়ে পড়া অডিও আদৌ সৌমিত্র খাঁয়ের কিনা। সৌমিত্র নিজেও এই নিয়ে মুখ খোলেননি। যদি এই অডিও সত্যি সত্যি সৌমিত্রেরই হয়, তাহলে সন্দেহ নেই বিজেপি আগামী লোকসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে খালি হাতেই ফিরবে।

Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

চাকরি খোয়ানো ঋণগ্রহীতাদের বাড়ি বাড়ি নোটিস যাবে

টাকা-পয়সা নিয়ে বিবাদ, ভাইয়ের হাতে খুন দাদা,গ্রেফতার অভিযুক্ত

তিন তোলাবাজ যুবককে গ্রেফতারের দাবিতে শান্তিপুর থানা ঘেরাও করে ডেপুটেশন দিলেন আমজনতা

জনজাতি সম্প্রদায়কে নিয়ে মায়াপুর ইসকনের তিনদিন ব্যাপী কনভেনশন

নিউটাউনে উদ্ধার হওয়া ক্ষতবিক্ষত যুবক করুণাময়ীর এইচএসবিসি ব্যাংকের কর্মী

মালদার চাঁচলে মিঠুনের রোড শোতে ‘গো ব্যাক’ স্লোগান তৃণমূলের

Advertisement
এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর