এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine

গরমে অতিরিক্ত ‘ওআরএস নয়’, সতর্ক করলেন চিকিৎসকেরা

courtesy google

নিজস্ব প্রতিনিধি :  গরমের সময় ওআরএস খাচ্ছেন বারবার ? গরমে জলশূন্যতার ভয়ে আমরা বাজার থেকে ঘন ঘন ওআরএস কিনে খেয়ে থাকি। অনেকে ভাবেন ওআরএস খেলেই এই গরমে সুস্থ থাকবেন! কিন্তু আপনি কি জানেন এই ওআরএস (ORS) এর মাত্রা বেড়ে গেলে তা আমাদের শরীরের জন্য কতটা ক্ষতিকর ? চিকিৎসকেরা বলছে ORS সম্পর্কে জনসচেতনতা বাড়ানো খুব প্রয়োজন। তবে জেনে নিন এই ওআরএসের ক্ষতিকারক দিক।

অতিরিক্ত লবনের পরিমাণ :  এতে থাকে অতিরিক্ত লবন। যার ফলে শরীরে রক্তচাপ বেড়ে যেতে পারে।

ভারসাম্যহীনতা :  স্যালাইন জলে সোডিয়াম ক্লোরাইড থাকে। যা ইলেকটোলাইট ভারসাম্যহীনতা সৃষ্টি করতে পারে। এটি অতিরিক্ত খেলে শরীরে নিয়ন্ত্রণ থাকে না।

শ্বাসকষ্ট : ভারসাম্যহীনতা কারণে শ্বাসকষ্ট হতে পারে। চোখে অন্ধকার দেখা যেতে পারে।

হাই ব্লাড প্রেসার : অতিরিক্ত স্যালাইন খাওয়ার ফলে রক্তে লবণের পরিমাণ বেড়ে হাই ব্লাড প্রেসারের সমস্যাও বেড়ে যেতে পারে। তুচ্ছ কারণে স্যালাইন খাওয়া স্বাস্থের জন্য ক্ষতিকর।

ওআরএস বেশি মাত্রায় খেলে ক্লান্তি থেকে গা বমিও পর্যন্ত হতে পারে। খুব বেশি ঘাম হলে খাবার স্যালাইন খেতে পারেন, তবে অবশ্যই সঠিক নিয়মে তৈরি করে। আমাদের বিভিন্ন শারীরিক কাজকর্মের জন্য ভিটামিন, মিনারেল এবং অন্যান্য বিভিন্ন ধরনের পুষ্টি প্রয়োজন রয়েছে। শরীরের সুস্থতায় সোডিয়াম, পটাসিয়াম এবং ক্যালসিয়ামের মতো উপাদানগুলির গুরুত্বও অপরিসীম। আমাদের পেশি সঙ্কোচন নিয়ন্ত্রণ থেকে শুরু করে শরীরে পর্যাপ্ত তরলের মাত্রা বজায় রাখার জন্য, এই খনিজগুলি শরীরে বিভিন্নভাবে সাহায্য করে। কিন্তু ডায়রিয়া, বমি বা অন্য কোন সংক্রমণের কারণে ডিহাইড্রেশন হলে শরীরে এইসব খনিজের ভারসাম্য বিঘ্নিত হয়। এই অবস্থাকে ইলেকট্রোলাইট ভারসাম্যহীনতা বলে যার প্রাথমিক অবস্থাতে সতর্ক না হলে রোগীর মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে। তবে ভরসা শুধু ওআরএস এ রাখলে চলবে না। এক্ষেত্রে বেশি দেরি না করে সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

বর্ষাকালে ভারতের যেসব জায়গা থেকে ঘুরে আসতে পারেন !

চোখে ঝাপসা দেখছেন! স্ট্রোকের লক্ষণ নয় তো ?

আম খাওয়ার পর ভুলেও এই ৫ খাবার ছোঁবেন না!

ফারাওরা কেন পিরামিড নির্মাণে এত সময় ও অর্থ ব্যয় করেছিল?

জুন মাসে ঘোরার জন্য রইল ৩ টি সেরা জায়গা

জেনে নিন কোন রোগের জন্য কোন চিকিৎসকের কাছে যাবেন

Advertisement
এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর