এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine

অবশেষে পদোন্নতি পেলেন ‘টুয়েলভথ ফেল’-এর বাস্তবের নায়ক মনোজ শর্মা

নিজস্ব প্রতিনিধি: গতবছর মুক্তিপ্রাপ্ত ’12th Fail’-নিয়ে আজও তরুণ প্রজন্ম ব্যস্ত। কখনও কখনও বাস্তবের সাধারণ কাহিনীও সিনেমার পর্দায় অসাধারণ ভাবে ফুটে ওঠে। যদিও কোনও সাধারণ কাহিনী দিয়ে নির্মাণ করা হয়নি ’12th Fail’, এই ছবির মাধ্যমে দর্শকরা জানতে পেরেছে এক IPS অফিসারের জীবন কাহিনী। যা হয়তো এখনও দেশবাসীর কাছে অজানাই রয়ে যেত। একটি অসাধারণ ছেলের গল্প পর্দায় তুলে ধরেছে বিধু বিনোদ চোপড়া। IPS অফিসার মনোজ কুমার শর্মার জীবন কাহিনী 12th fail। যদি মনে ইচ্ছে এবং, সাহস থাকে, তাহলে উচ্চমাধ্যমিক ফেইল করেও লক্ষ্যে পৌঁছনো সম্ভব। সেটাই একেবারে পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছিলেন বিধু বিনোদ চোপড়া। তবে তিনি সফল হতেন না, যদি না তিনি মনোজের চরিত্রের দায়িত্ব অভিনেতা বিক্রান্ত ম্যাসিকে দিতেন। কীভাবে উচ্চমাধ্যমিক ফেইল করেও IPS অফিসার হওয়া যায়, দেশের শীর্ষতম পুলিশ অফিসার হওয়া যায়, সেটা একেবারে সমাজের চোখে আঙুল দিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছেন IPS অফিসার মনোজ কুমার শর্মা।

শুধু তাই নয়, ভালোবাসা পাশে থাকলে যে, সমস্ত প্রতিকূলতাকে জয় করা যায়, সেটাই মনোজ কুমারের জীবনের একটি অংশ। কারণ মনোজের স্ত্রীও একজন IAS আমলা। যাই হোক, ছবিটি এখনও পর্যন্ত ফিল্মফেয়ার পুরস্কার, ক্রিটিক চয়েস award জিতে ফেলেছে। আর যার কাহিনী দিয়ে গোটা দেশবাসীর মন জিতল 12th fail, সেই গল্পের বাস্তব নায়ক মনোজ কুমার শর্মাও এখন হিরো। তাঁর এই কাহিনী প্রভাবিত করেছে সকলকে। তাই সবার আশীর্বাদে সম্প্রতি আইপিএস অফিসার মনোজ কুমার শর্মা মহারাষ্ট্র পুলিশের ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনারেল (ডিআইজি) থেকে ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজি) পদে উন্নীত হয়েছেন। তাঁর কর্মজীবনের এই অগ্রগতি ২০০৩, ২০০৪ এবং ২০০৫ ব্যাচের আইপিএস অফিসারদের জন্য ক্যাবিনেটের নিয়োগ কমিটি (ACC) দ্বারা পদোন্নতির অনুমোদন অনুসরণ করে। তিনি তাঁর পদোন্নতির খবরটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন। তার কঠিন কর্মজীবনের পথ জুড়ে যারা তাকে সমর্থন করেছেন তাদের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে পোস্টে তিনি লিখেছেন, “এএসপি থেকে শুরু হওয়া যাত্রাটি ভারত সরকারের আদেশে আজ আইজি হওয়ার পথে পৌঁছেছে। এই দীর্ঘ যাত্রায় আমাকে সমর্থন করার জন্য সকলের কাছে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।”

 

পোস্টটি ভাইরাল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সোশ্যাল মিডিয়াবাসীরা তাঁকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। একজন ব্যক্তি লিখেছেন, “অভিনন্দন, মনোজ স্যার। আপনার গল্প আমাদের খুব অনুপ্রাণিত করেছে, আপনি এটির প্রাপ্য। আপনি তরুণ প্রজন্মের জন্য সত্যিকারের অনুপ্রেরণা। এই দেশে আপনার মতো স্পষ্টভাষী এবং সৎ অফিসার দরকার।” বিহার থেকে উঠে আসা একজন গরিব ঘরের ছেলে মনোজ ১২ ক্লাশে তৃতীয় ডিভিশনে পাশ করে কীভাবে চাকরির পরীক্ষায় একের পর এক ধাপে ব্যর্থ হয়ে IPS অফিসার হলেন সেটাই গল্পের মূল উপজীব্য।

Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

রাজস্থানের চুরু ও হরিয়ানার সিরসায় তাপমাত্রা ছাড়াল ৫০ ডিগ্রি

গরম থেকে রেহাই পেতে সভায় নিজের মাথাতেই জল ঢাললেন রাহুল

পরীক্ষার উত্তরপত্র দেখার রিল বানিয়ে বিতর্কে শিক্ষিকা

পারিবারিক বিয়েতে স্বামী ও দেওরদের সঙ্গে তুমুল নাচ বিদ্যার, ভাইরাল ভিডিও

গল্প নয় সত্যি, পঞ্জাবে বাড়ির ছাদে ‘স্ট্যাচু অব লিবার্টি’!

জয়ার পর এবার টলিউডের ‘ধন্যি মেয়ে’ দেবলীনা, তাহলে উত্তমকুমার কে?

Advertisement
এক ঝলকে
Advertisement

জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর