এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




৮০সি ধারায় কর ছাড় চাইছেন? এই ভুলগুলি করলেই বিপদ




নিজস্ব প্রতিনিধি: দেশের বেশিরভাগ সাধারণ মানুষের মনেই একটা প্রশ্ন ঘুরপাক খায়, কিভাবে বেতনের উপর কর বাঁচানো যায়? আর যদি আপনি এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর পেতে চান, তাহলে বলে রাখি, আয়কর আইন, ১৯৬১-এর অধীনে কর ছাড়ের অনেক বৈধ উপায় রয়েছে। বিশেষ করে ৮০সি ধারায় আপনি কর ছাড় পেতে পারেন। এটিই করদাতাদের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং পছন্দের উপায়। এটি মূলত আপনার করা কিছু খরচ এবং বিনিয়োগকে করমুক্ত করার অনুমতি দেয়।

যেহেতু এটি কর-সঞ্চয়ী বিনিয়োগ বা যোগ্য ব্যয় করে করযোগ্য আয় হ্রাস করতে দেয়। সেহেতু এই ধারা গুলির সুবিধা নেওয়াই সবচেয়ে নিরাপদ। ৮০সি ধারার বেশ কয়েকটি উপধারা রয়েছে, যেগুলি হল ৮০সিসিসি, ৮০সিসিডি(১), ৮০সিসিডি(১বি) এবং ৮০সিসিডি(২)। আয়কর আইনের ৮০সি ধারাটি ২০০৬ সালের ১ এপ্রিল থেকে কার্যকর হয়েছে।

আপনি যদি আপনার বিনিয়োগের ভাল পরিকল্পনা করেন এবং বিনিয়োগ সুপরিকল্পিতভাবে ছড়িয়ে দিতে চান তবে কয়েকটি জায়গায় বিনিয়োগ করতে পারেন। যেমন পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড (PPF), ন্যাশনাল পেনশন সিস্টেম (NPS), ন্যাশনাল সেভিং সার্টিফিকেট (NSC), গৃহ ঋণ (Home Loan) পরিশোধ করা ইত্য়াদি। এগুলির মাধ্য়মে আপনি বছরে দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত কর ছাড় দাবি করতে পারবেন। যা আপনার করের দায় অনেকটাই কমিয়ে দেবে।

যাইহোক, দুটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় রয়েছে যা আপনার জানা দরকার। প্রথমটি হল যে শুধুমাত্র ব্যক্তি এবং HUF-গুলি এই ছাড়ের সুবিধাগুলি পেতে পারেন। অর্থাৎ, কোনও কোম্পানি, অংশীদারি সংস্থা এবং LLP-রা তা করতে পারে না। দ্বিতীয়টি হল, সাম্প্রতিক অর্থ আইন ২০২০-এর (Finance Act 2020) ধারার ১১৫বিএসি (115BAC) উপধারা অনুসারে করদাতাদের ছাড় দেওয়ার অনুমতি নেই।

আমরা পর্যবেক্ষণ করেছি যে যদি করদাতা নতুন কর স্কিমের অধীনে ১১৫বিএসি বেছে নেয়, তাহলে তিনি ৮০সি ধারার অধীনে কর ছাড়ের দাবির জন্য যোগ্য হবেন না। কিন্তু যদি করদাতা কোনও আর্থিক বছরের জন্য পুরানো কর স্কিম বেছে নেন, তবে তিনি ৮০সি ধারার অধীনে এখনও ছাড় পেতে পারেন। সাধারণ করদাতারা সাধারণত তাদের দুর্বল পরিকল্পনার কারণে যে ঝুঁকি এবং ভুলগুলি করে থাকেন সে সম্পর্কে আপনাকে আরও সচেতন করতে পারি। যাতে আপনি এর সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে পারেন।




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

‘মিস এআই’ প্রতিযোগিতায় প্রথম দশে বাছাই ভারতের জারা

মাইক্রোসফটকে হঠিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান সংস্থার সিংহাসনে এনভিডিয়া

প্রবল গরমে গাড়ির এই ৫ ক্ষতি ভুলেও করবেন না

বাংলা-সহ ৯ ভাষায় জেমিনি এআই অ্যাপ নিয়ে এল গুগল

দেশের সবচয়ে ব্যয়বহুল শহর মুম্বই, সবচেয়ে সস্তার কলকাতা

ইভিএম বাতিলের পক্ষে সওয়াল মাস্কের, সমর্থন রাহুলের

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর