এই মুহূর্তে

WEB Ad Valentine 3

WEB Ad_Valentine




তৃণমূল কর্মীর বইয়ের দোকান দখল করে পার্টি অফিস বানাল বিজেপি

Courtesy - Google




নিজস্ব প্রতিনিধি: কলকাতার ধর্মতলায় শাহি সভার জন্য চাঁদা না দেওয়ায় এক তৃণমূল কর্মীর(TMC Worker) বইয়ের গোডাউন দখল করে পার্টি অফিস বানিয়ে ফেললো বিজেপি(BJP)। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর(Purba Midnapur) জেলার হলদিয়া মহকুমার নন্দীগ্রাম-২(Nandigram) ব্লকের বয়াল-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের(Boyal-2 GP) আসদতলায়। ওই তৃণমূল কর্মীর দোকান দখল করে বিজেপির কর্মীরা ইলেক্ট্রিক মিটার বক্স খুলে বাইরে ছুঁড়ে ফেলে দেওয়ার পাশাপাশি সেখানে দলের ফ্লেক্স ঝুলিয়ে দিয়েছে। দোকানের দরজায় ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে তালা। গোটা ঘটনায় প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছেন বইয়ের দোকানদার তথা তৃণমূলকর্মী নবকুমার সামন্ত। স্থানীয় বিজেপির উপপ্রধান চন্দ্রকান্ত মণ্ডল সহ পদ্মশিবিরের ৩ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে তিনি নন্দীগ্রাম থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

জানা গিয়েছে, ঘটনার সূত্রপাত গত ২৭ নভেম্বর। কলকাতার ধর্মতলায় শাহি সভার জন্য দাবিমতো টাকা না দেওয়ায় আসদতলা এলাকার নবকুমার সামন্তের বইয়ের দোকানে তালা ঝুলিয়ে দেয় বিজেপির লোকজন। উপপ্রধান চন্দ্রকান্ত মণ্ডল নিজে সেদিন উপস্থিত থেকে বিজেপির লোকজনকে দিয়ে দোকানে গিয়ে তালা ঝুলিয়ে দেন। প্রশাসনের হস্তক্ষেপে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্বের উপস্থিতিতে ২৮তারিখ সেই তালা খোলা হয়। আগের মতোই দোকানে বসা শুরু করেন নবকুমারবাবু। কিন্তু, নন্দীগ্রাম থানার পুলিশ গিয়ে তালা খুলে দেওয়ার বিষয়টি মোটেও ভালোভাবে নেয়নি বিজেপির লোকজন। শুক্রবার দুপুরে উপপ্রধানের নির্দেশে বিজেপির লোকজন নবকুমার সামন্তের বইয়ের দোকান ফের চড়াও হয়। সেখানে তারা ভেতরে ঢুকে ইলেক্ট্রিক মিটার বক্স খুলে ফেলে। তারপর তালা ঝুলিয়ে বাইরে বড় বড় ফ্লেক্স ঝুলিয়ে দোকানের দখল নেয়। সেটি বিজেপির কার্যালয় হিসেবে ব্যবহৃত হবে বলে দলের নেতা-কর্মীদের বক্তব্য।

জানা গিয়েছে, টেঙ্গুয়া থেকে তেরপেখ্যা ফেরিঘাটে যাওয়ার পথে আসদতলা বাস স্টপেজ এলাকাতেই নবকুমার সামন্তের বইয়ের দোকান। দোকান থেকে ১০০ মিটার দূরে তাঁর একটি বইয়ের গোডাউনও রয়েছে। ২০২২সালের আগস্ট মাসে সেই গোডাউন ২ লক্ষ টাকার বিনিময়ে কেনেন নবকুমারবাবু। সেই নথির ভিত্তিতে ওই গোডাউনে কমার্শিয়াল ইলক্ট্রিক সংযোগ পেয়েছিলেন নবকুমারবাবু। সেই গোডাউনও দখল করে নিয়েছে বিজেপি। সেখানে আবার মিটার বক্স খুলে মালিকানা নিয়ে প্রমাণ লোপাটের চেষ্টা করেছে গেরুয়া শিবির। গোটা ঘটনায় অভিযুক্ত উপপ্রধান চন্দ্রকান্ত মণ্ডল জানিয়েছেন, ‘ওই দোকান ঘর আর গোডাউন দুটোই আমরা কিনে নিয়েছি। তাই সেখানে আমরা দখল নিয়েছি। ওখানে আমাদের পার্টি অফিস হবে।’




Published by:

Ei Muhurte

Share Link:

More Releted News:

৫৫ হাজার অসমাপ্ত বাড়ির কাজ শেষের জন্য টাকা ছাড়ছে রাজ্য

পুরুলিয়ায় পরপর পথ দুর্ঘটনায় নিহত ৩, প্রাণ গেল ৮ বছরের নাবালিকার

তারকেশ্বরের শ্রাবণী মেলা উপলক্ষে পূর্ব রেলওয়ের ইএমইউ স্পেশাল ট্রেন চালানোর ঘোষণা

বাগনানে তৃণমূলকে ভোট না দেওয়া মানুষকেও রথের শুভেচ্ছা জানালেন বিধায়ক অরুনাভ সেন

বাদুড়িয়াতে মধুচক্রের আসরের বিরুদ্ধে গ্রামবাসীদের বিক্ষোভ, অবরোধ তুলতে গিয়ে আক্রান্ত পুলিশ

ফের বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ তৈরির সম্ভাবনা, ২১শে জুলাই কলকাতায় বৃষ্টির পূর্বাভাস

Advertisement




এক ঝলকে
Advertisement




জেলা ভিত্তিক সংবাদ

দার্জিলিং

কালিম্পং

জলপাইগুড়ি

আলিপুরদুয়ার

কোচবিহার

উত্তর দিনাজপুর

দক্ষিণ দিনাজপুর

মালদা

মুর্শিদাবাদ

নদিয়া

পূর্ব বর্ধমান

বীরভূম

পশ্চিম বর্ধমান

বাঁকুড়া

পুরুলিয়া

ঝাড়গ্রাম

পশ্চিম মেদিনীপুর

হুগলি

উত্তর চব্বিশ পরগনা

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা

হাওড়া

পূর্ব মেদিনীপুর